fbpx
বগুড়া জেলার সংবাদশাজাহানপুর

নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ কিশোর ॥ পরে মিললো লাশ

শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমানঃ বগুড়ার শাজাহানপুরে শাকিল আহমেদ (১৮) নামে এক কিশোরের মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

নিহত শাকিল আহমেদ উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের নয়মাইল জামালপুর গ্রামের আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে। শনিবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতের বড়ভাই আশিক জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সিদ্দিক ও শামীম নামে প্রতিবেশী দুই যুবকের সাথে জামালপুর গ্রামে করতোয়া নদীর চরকা দহে মাছ ধরতে যায় শাকিল। দুপুর ১টার দিকে খবর পান শাকিল নদীতে মাছ ধরা শেষ করে গোসল করতে গিয়ে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সাথে সাথে গ্রামের লোকজন গিয়ে নদীতে নেমে অনেক খোঁজাখুঁজির পর যেখান থেকে নিখোঁজ হয়েছিল সেখানেই পানির নীচে শাকিলের মরদেহ পাওয়া যায়।

একসাথে মাছ ধরতে যাওয়া সিদ্দিক জানান, নদীতে কারেন্ট জাল ফেলে মাছ ধরছিলেন তারা। মাছ ধরা শেষ করে তিনি আর শামীম জাল গুছিয়ে নিয়ে নদীর পাড়ে উঠে আসেন। শাকিল নদীতে বুক পর্যন্ত পানিতে নেমে ডুব দিয়ে গোসল করছিল। কিন্তু গোসল করতে করতেই নিখোঁজ হয় শাকিল। তাকে দেখতে পাওয়া যাচ্ছিল না। কিন্তু নদীর পানি নড়াচড়া করছিল। তখন দ্রুত পানিতে নেমে তাকে না পেয়ে আশপাশের লোকজনকে জানালে সবাই মিলে অনেক খোঁজাখুঁজির পর যেখান থেকে নিখোঁজ হয়েছিল সেখান থেকেই শাকিলের লাশ পাওয়া যায়।

স্থানীয়রা জানান, শাকিল একজন নম্র ও ভদ্র ছেলে ছিল। কারো সাথে তার কোন শত্রুতা ছিল না। করতোয়া নদীর চরকা দহ দূষনীয় স্থান। এর আগেও ওই স্থানে অনেক অশুভ ঘটনা ঘটেছে। শনিবারের দিন দুপুর বেলা তাই পানির ভিতরে থাকা কোন অশুভ শক্তি শাকিলকে হত্যা করেছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

শাজাহানপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

twenty − sixteen =

Back to top button
Close