বগুড়া সংবাদ ডট কম : তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে এবং অভিযুক্ত সাবেক স্বামীর বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবী করে বগুড়া প্রেসক্লাবে পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন মোছা: ছালমা খাতুন নামে এক নারী।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, তার সাবেক স্বামী মো: আনছার আলীকে আড়াই লক্ষ টাকা খরচ করে বিদেশে পাঠায়। বিদেশ থেকে এসে সে বগুড়া সদরের চালিতাবাড়ি গ্রামের রাজিয়া সুলতানা নামে এক মহিলার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে তাকে বিবাহ করে আমাকে একতরফভাবে তালাক প্রদান করে। তালাকের সময় অতিবাহিত হলে গত ০৫ মার্চ রাতে পুনরায় বিবাহের প্রলোভন দিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। ছালমা খাতুন আরো বলেন, দ্বিতীয় বিবাহের পর তার দুই সন্তান ও তাকে তার স্বামী কোন প্রকার ভরনপোষন দেয় না উল্টো তার নিকট থেকে যৌতুক দাবী করে। এ ব্যাপারে ছালমা খাতুন তার স্বামী আনছার আলীর বিরুদ্ধে যৌতুক আইনে একটি ও পারিবারিক আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা দুটি বর্তমানে বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধিন রয়েছে। এছাড়াও ছালামা খাতুনকে নিয়ে তার কথিত সতিন রাজিয়া সুলতানা তাকে জড়িয়ে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে যেসব বক্তব্য দিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন তার সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন বলে দাবী করেছেন তিনি। তিনি আরো বলেন, গত ১২ জানুয়ারি দুপুরে ছালমার স্বামী তিন ভাতিজাসহ তার বসত বাড়িতে হামলা চালায় এবং বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি প্রদান করে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন