fbpx
বগুড়া জেলার সংবাদশাজাহানপুর

কাঁচা মরিচের ঝালে লাল ক্রেতা সাধারন

বগুড়া সংবাদ ডট কম শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়ার শাজাহানপুরে খুচরা বাজারে চারশত টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে কাঁচা মরিচ। ঈদ পরবর্তি সময়ে পাইকারী বাজারে আমদানী কম হওয়ায় বেশী দামে ক্রয় করে বেশী দামে বিক্রি করতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। হঠাৎ করে কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় নাভীস্বাস উঠেছে ক্রেতা সাধারনের।মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার মাঝিড়া কাঁচা বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, বিন্দি জাতের কাঁচা মরিচ ৩৬০ থেকে ৪০০ টাকা কেজি এবং মাগুরিয়া জাতের মরিচ ২৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।কাঁচা তরিতরকারী ব্যবসায়ী রেজাউল করিম জানান, ঈদের আগে দাম কম ছিল।

ঈদ পর মোকামে আমদানী কম হওয়ায় দাম বেড়ে গেছে। তাই বেশী দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। তবে ক্রেতারা জানান, মাঝিড়া বাজারে কাঁচা তরিতরকারীর দাম অন্যান্য বাজারের চেয়ে সবসময় বেশী থাকে। পার্শ্ববর্তি বাজার বি-ব্লক, আড়িয়া বাজার, দুবলাগাড়ী হাটের বাজার দরের থেকে কেজি প্রতি ১০-২০ টাকা বেশী নেয়া হয়।অপরদিকে দুবলাগাড়ী হাটে গিয়ে দেখা গেছে, বিন্দি জাতের কাঁচা মরিচ খুচরা বাজারে ৩২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। মাগুরিয়া জাতের মরিচ খুচরা বাজারে ২০০ এবং পাইকারী ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বেপারী জহুরুল ইসলাম জানান, বগুড়ার কোন মরিচ বাজারে নাই। নঁওগা ও এর আশপাশ এলাকা থেকে মোকামে যে মরিচ আসে তা পরিমানে কম। আমদানী কম হওয়ায় বেশী দামে কিনতে হচ্ছে।

হঠাৎ করে কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় নাভীস্বাস উঠেছে ক্রেতা সাধারনের। তবে অন্যান্য তরিতরকারীর দাম স্বাভাবিক রয়েছে। দুবলাগাড়ী হাটের খুচরা বাজারে বেগুন, পটল, মুখী কচু ৪০ টাকা, আলু ৩৫-৪০, করলা ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করতে দেখা গেছে। আদা ১৫০ এবং রশুন ৯০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 − two =

Back to top button
Close