fbpx
ধুনটবগুড়া জেলার সংবাদ

ধুনটে পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ বাণিজ্য সহ গ্রাহক হয়রানীর অভিযোগ

বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনট পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার ফিরোজ কবিরের বিরুদ্ধে অর্থের বিনিময়ে মালামাল প্রদান সহ গ্রাহক হয়রানীর বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে ধুনট মডেল প্রেসক্লাবে লিখিত সংবাদ সম্মেলনে গোপালনগর ইউনিয়নের চকডাকাতিয়া গ্রামের মোশারফ হোসেন নামে এক কৃষক এমন অভিযোগ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে মোশারফ হোসেন বলেন, আমি সেচ সংযোগের জন্য মালামাল বাবদ সম্পূর্ণ টাকা ধুনট পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসে পরিশোধ করি। কিন্তু মালামাল নেওয়ার জন্য ধুনট জোনাল অফিসে গেলে জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার ফিরোজ কবির আমাকে মালামাল দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। দীর্ঘদিন অফিসে ঘুরেও আমাকে মালামাল না দিয়ে বিভিন্নভাবে হয়রানী করেছে। পরে তার দাবিকৃত ১০ হাজার টাকার মধ্যে ৫ হাজার টাকা পরিশোধ করার পর আমাকে মালামাল প্রদান করে। বর্তমানে ফিরোজ কবির আরো টাকার জন্য আমাকে চাপ প্রয়োগ করছে। তাই আমি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ফিরোজ কবিরের হয়রানী থেকে রক্ষা করতে এবং তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
তবে বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে হয়রানী শিকার শুধু মোশারফ হোসেনই নয়, তার মতো একইভাবে হয়রানীর শিকার হয়েছেন একই ইউনিয়নের চকমেহেদী গ্রামের কেশমত আলীর ছেলে আব্দুল খালেক। তার কাছ থেকেও ৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার ফিরোজ কবিব। তার বিরুদ্ধে অর্থের বিনিময়ে মালামাল প্রদান ও ভুয়া লইসেন্সে সেচ সংযোগ প্রদান সহ গ্রাহক হয়রানীর বিভিন্ন অভিযোগও রয়েছে।
তবে ধুনট পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার ফিরোজ কবিব তার বিরুদ্ধে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, কোন গ্রাহককে হয়রানী বা টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হয়নি।
এবিষয়ে ধুনট পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের জেনারেল ম্যানেজার মাহবুব জিয়া বলেন, ফিরোজ কবির ৭দিন ধরে অসুস্থ রয়েছেন। তবে তার বিরুদ্ধে কোন গ্রাহকের অভিযোগ থাকলে অবশ্যই তা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten − six =

Back to top button
Close