শেরপুর

বগুড়ার শেরপুরে পৃথক ৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮ আহত ২০

বগুড়া সংবাদ ডটকম ( শেরপুর প্রতিনিধি কামাল আহমেদ) বগুড়ার শেরপুরে ঢাক-বগুড়া মহাসড়করে সিমাবাড়ী ইউনিয়নের ঘোগা বটতলা এলাকায় বাস-ট্রাক মুখোমুখি সংর্ঘষে ঘটনাস্থলেই ৪ জন নিহত ও চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ২জন নিহত হয়ে। এ ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। বুধবার (২৫ মার্চ) বেলা পৌনে ১২ টায় বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কে শেরপুর উপজেলার ঘোগা বটতলা এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।
জানা যায়, বগুড়াগামী লবন বোঝাই ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-১৩-১৬৬৮) সাথে বগুড়া থেকে সিরাজগঞ্জগামী লাব্বাইক পরিবহন (ঢাকা মেট্রো ব ১৫-৬৮৮৯) নামের যাত্রী বাহী বাসের মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। এতে লবন বোঝাই ট্রাক উল্টে লবনের বস্তা চাপায় চার জন যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এছাড়াও বাসের কমপক্ষে ২০ জন যাত্রী আহত হলে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ১টায় এক জন ও বেলা ৩টায় ১জন নিহত হয়। হতাহতদের পরিচয় এখনা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ ও ফাযার সার্ভিস।
অন্যদিকে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের মহিপুর জামতলা এলাকায় ট্রাক মুখোমুকি সংঘর্ষে মৃদুল হোসেন (২২) নামের ১জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরো ৪ জন আহত হয়েছে। নিহত মৃদুল হোসেন জয়পুর হাট জেলার পাঁচবিবি থানার কেচরা গ্রামের রফিকুল ইসলাম (রফিক) এর ছেলে। বুধবার ২৫ মার্চ ভোর সাড়ে ৫টায় বগুড়ার শেরপুর উপজেলার মহিপুর জামতলা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। জানাযায়, নওঁগাগামী লবণ বোঝাই ট্রাক (ঢাকা-মেট্র-ট-১৬-১৩৫৫) এবং ঢাকাগামী পাথর বোঝাই ট্রাক (ঢাকা-মেট্র-ট-১৫-২০১১) মহিপুর জামতলা এলাকায় পৌছালে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে লবণ বোঝাই ট্রাক উল্টে গেলে ট্রাকের উপর থাকা যাত্রি মৃদুল লবণের বস্তার নিচে চাপা পড়ে মারা যায়। শেরপুর ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স রতন ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আহত ব্যক্তিদের শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আধাঘন্টা পর মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবি হয়েছে।
অন্যদিকে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের সিমাবাড়ী ইউনিয়নের পেন্টাগন হোটেল এলাকায় লড়ি ও মাইক্রেবাস মুখোমুখি সংঘর্ষে ১জন নিহত হয়েছে। বুধবার ২৫ মার্চ দুপুর ৩টায় ধুনকুন্ডি এলাকার পেন্টাগন নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জানা যায়, বগুড়াগামী গ্যাস সিলিন্টার লড়ি (খুলনা-মেট্র-ই-৬১-০০০৩) এবং ঢাকাগামী মাইক্রেবাস (ঢাকা-মেট্র-চ-৫৩-৭৯৮৩) ধুনকুন্ডি এলাকায় পৌছালে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাসের ড্রাইভার গুরুতর আহত হয়। চিকিৎসার জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল ৪টায় মারা যায় । নিহতের পরিচয় জানা যায়নি। শেরপুর ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স রতন হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আহত ব্যক্তিদের শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবি হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 + 7 =

Back to top button
Close