ধুনটবগুড়া জেলার সংবাদ

ধুনটে ‘বুলবুল’ কেড়ে নিয়ে নিয়েছে টমেটো চাষিদের স্বপ্ন !

বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) :  বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ কেড়ে নিয়েছে টমেটো চাষিদের সোনালী স্বপ্ন। টমেটোর চারা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় চাষিদের স্বপ্ন মাটিতে মিশে গেছে। লোকসানের মুখে পড়ে ও আয়ের উৎস হারিয়ে হতাশায় ভুগছেন ধুনট উপজেলার টমেটো চাষিরা। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর সূত্রে জানাগেছে, ধুনট উপজেলায় চলতি মৌসুমে ১৮০ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ হয়েছে। কিন্তু আগাম টমেটো চাষ হওয়ায় প্রায় ৮০ হেক্টর জমির টমেটো ক্ষেতই নষ্ট হয়ে গেছে। বুধবার ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ী, রুদ্রবাড়িয়া, নাগেশ্বেরগাতি, থেউকান্দি, সোগাইবাড়ী, পারধুনট, আনারপুর, কালেরপাড়া ও চিকাশী সহ বিভিন্ন গ্রামের কৃষি মাঠে গিয়ে দেখা যায়, রোপন করা টমেটো গাছ মরে যাওয়ায় গাছের সবুজ পাতা শুকিয়ে বিবর্ণ হয়ে আছে। ঝড়ের তান্ডব আর বৃষ্টির পানি সহ্য করতে না পেরে ফুলে-ফলে ভরা টমেটো গাছ মরে গেছে। মরা গাছের ডালপালা ঝুলছে বেড়ায়। মরা গাছের কোনো কোনোটিতে ছোট-বড় আকারের টমেটো ঝুলছে। প্রয়োজনীয় পুষ্টির অভাবে ওই টমেটোও বিবর্ণ হয়ে আছে। টমেটো গাছ মরার চিত্র প্রায় একই রকম। এর পরেও শেষ মুহূর্তে কোনো কোনো চাষি মরা টমেটো গাছ বাঁচানোর চেষ্টা করে চলেছেন। তবে ধুনট উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস সোবাহান জানান, এই উপজেলায় টমেটো চাষের উপযুক্ত সময় ১৮ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত। কিন্তু অনেক কৃষক অধিক লাভের আশায় সেপ্টেম্বর মাসেই টমেটোর চারা রোপন করেছেন। তাই আবহাওয়ার কারনে অনেক কৃষকের টমেটোর ক্ষেত নষ্ট হয়েছে। পারধুনট গ্রামের টমেটো চাষি এরশাদ মিয়া জানান, গত মৌসুমে প্রায় ৪০ হাজার টাকা ব্যয় করে এক বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা বিক্রি করেছিলেন। তাই অধিক লাভের আশায় এবারও ৩০ হাজার টাকা খরচ করে এক বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছেন। বর্তমান বাজারে ১৬শ থেকে ১৮শ টাকা মন দরে টমেটো বিক্রি হলেও গাছ মরে যাওয়ায় ফলন কম য়েছে। একারনে লোকশানের মুখে পড়ার আশংকা রয়েছে। তাই ধার- দেনা কিভাবে পরিশোধ করবেন তা নিয়েই এখন দুশ্চিন্তায় আছেন এ চাষি। চৌকিবাড়ী গ্রামের আরেক চাষি আলাউদ্দিন শেখ বলেন, দুই বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছি। টমেটো গাছে ফুল আর টমেটোতে ভরপুর ছিল। হঠাৎ বুলবুল আঘাত হানায় গাছ মরে শুকিয়ে গেছে। এতে আমার লাখ টাকার টমেটো বিক্রির স্বপ্ন মাটিতে মিশে গেছে। তবে এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় সব টমেটো চাষিদের অবস্থা প্রায় একই রকম জানিয়ে টমেটো চাষিরা তাদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সরকারের কাছে সাহয্যের দাবি জানিয়েছেন। ধুনট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম জানান, বর্তমান বাজারে কৃষকেরা টমেটোর ন্যায্য দাম পেলেও আবহাওয়ার কারনে অনেক ক্ষেত নষ্ট হয়েছে। তাই ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের সাহায্যের জন্য সরকারের কাছে আবেদন করা হবে বলেও জানান তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + 14 =

Back to top button
Close