বগুড়া জেলার সংবাদশাজাহানপুর

আদালতে বিচারাধিন একটি পুকুর দখলের অভিযোগ

বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) :  আদালতে বিচারাধিন বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার ডোমনপুকুর মৌজার ২ দশমিক ৯৩ শতাংশ একটি পুকুর জবর-দখলের অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সোমবার মাহবুবর রহমান নামে এক ব্যক্তি বগুড়া পুলিশ সুপার বরাবর এই অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ডোমনপুকুর বুদাপাড়ার মৃত তৈয়ব আলী প্রামানিকের পুত্র মাহবুবর রহমান ২০১৩ সালে উপজেলার ডোমনপুকুর মৌজার ১৭১৫ ও ১৭১৬ দাগের মোট ২ দশমিক ৯৩ শতক জমি ক্রয় মূলে ভোগ দখল করে আসছেন। বর্তমানে ওই জমিতে থাকা পুকুরে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করছেন মাহবুবর রহমান। উক্ত জমি নিয়ে জেলা বগুড়ার ১ম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ৯৪/০৯ অন্য প্রকার মোকদ্দমা বিচারাধিন রয়েছে। ওই মামলায় বিবাদীগন আদালতে বাদিগনের বিরুদ্ধে ইনজেকশন আবেদন করিলে বিজ্ঞ আদালত ইনজেকশন না-মঞ্জুর করে স্থিতিবস্থা জারি করেন। এমতাবস্থায় রবিবার সকালে ডোমনপুকুর গ্রামের রইচ উদ্দিন প্রামানিকের দু’পুত্র গোলাম রব্বানী (৪৫), মিরাজুল ইসলাম (৪২০ ও মৃত মোসলেম উদ্দিনের পুত্র মহসিন আলী (৪৭) গং আদালতের স্থিতিবস্থা অমান্য করে লোকজন নিয়ে এসে পুকুরের মাছ মেরে পুকুর দখলের চেষ্টা করেন। এতে বাধা দিলে তারা মাহবুবর রহমানকে হত্যা সহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধামকি দিয়ে চলে যায়। এমতবস্থায় পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে ক্ষতি সাধন সহ জিবনের নিরাপত্তাহীনতার আশংকা করে পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মাহবুবর রহমান। যার অনুলিপি শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কে দেয়া হয়েছে। বাদি মাহবুবর রহমান জানান, অভিযোগ দেয়ার পরদিন সোমবার সকালে পুনরায় তারা পুকুর দখলের চেষ্টা করে। সাথে সাথে থানা পুলিশকে খবর দেয়া হলে পুলিশ এলে তারা পালিয়ে যায়। বিবাদী গোলাম রব্বানী জানান, ওই জমি ক্রয় সূত্রে তারাই মালিক। ২০১৮ সালের শেষে দিকে মাহবুবর রহমান লোকজন নিয়ে এসে ওই পুকুর দখল করে নেয়। আদালতের স্থিতিবস্থা মাহবুবর রহমানই অমান্য করে জবর-দখল করে রেখেছে। থানার এসআই নুর ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষকে আইন-শৃংখলা বজায় রাখতে এবং আদালতের নির্দেশ মেনে চলতে বলা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × five =

Back to top button
Close