বগুড়া জেলার সংবাদশাজাহানপুর

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক ট্রাক ছেঁড়া টাকা খালে

বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকের বাতিলকৃত পাঞ্চ করা বিপুল পরিমান টুকরো টুকরো টাকা উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার জালশুকা খাউরা খালের পাড় থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় এই পাঞ্চ করা টাকা উদ্ধার করা হয়।

চলমান দূর্নীতি বিরোধী আন্দোলনে ভীত হয়ে কালো টাকার মালিকেরা এই টাকা গুলো রাতের আঁধারে ফেলে দিয়ে গেছে এমন গুজবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক চাঞ্চলের সৃস্টি হয়েছে।

থানার ওসি আজিম উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে স্থানীয়দের দেয়া খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় খাউড়া খালের পাড়ে বিপুল পরিমান ছেঁড়া টাকা পরিত্যাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। খবর নিয়ে জানা গেছে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বগুড়া পৌরসভার কাছে ময়লা আবর্জনা পরিস্কারের জন্য চিঠি দেয়। সে মোতাবেক বগুড়া পৌরসভা কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ছেঁড়া টাকা ট্রাকে করে শাজাহানপুরের খাউড়া খালের পাড়ে ফেলে যায়। আলামত হিসেবে কিছু টাকা বস্তায় ভরে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দু’দিন আগে কে বার কারা খালের পাড়ে স্তুপিকারে ছেঁড়া টাকা গুলি ফেলে রেখে যায়। অনেকে ওই ছেঁড়া টাকা গুলো জ্বালানি হিসেবে নিয়ে যায়।

খোট্টাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল বারী মন্ডল জানান, মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি জানতে পেরে থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে টাকা গুলি উদ্ধার করে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ছেঁড়া টাকা পুড়িয়ে ফেলার কথা থাকলেও তা না করে জনসম্মুখে ফেলে দেয়ায় স্থানীয়দের মাঝে আতংকের সৃষ্টি হয়। এতে করে সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কান্ডজ্ঞানহীনতার প্রশ্ন উঠেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক বগুড়া শাখার যুগ্ম ব্যবস্থাপক শাজাহান আলী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ব্যাংক বগুড়া শাখার বাতিলকৃত নোটের পাঞ্চ করা টুকরো গুলো বগুড়া পৌরসভাকে ধ্বংশ করার জন্য চিঠি দেয়া হয়েছিল। ফেলে দেয়া টুকরো গুলো মেশিন দিয়ে কেটে ফেলা হয়েছে। যা কখনো জোড়া লাগানো যাবে না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বগুড়া শাখার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ব্যাংকিং) সরকার আল ইমরান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বাতিল নোটের পাঞ্চ করা এই টুকরো আগে ব্যাংকের ভিতর নির্দিষ্ট স্থানে পুড়ে ফেলা হতো। পরিবেশ দূশণের কারণে পৌরকর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বর্জ্য হিসেবে ফেলে দেয়ার ঘটনা এই প্রথম।

বগুড়া পৌরসভার বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা রাফিউল আবেদীন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষের চিঠি পেয়ে পৌরসভার ট্রাকে করে বর্জ্য হিসেবে এক ট্রাক নোটের টুকরো ফেলে দেয়া হয়েছে। আগে কখনো এই ধরনের বর্জ্য অপসারন করা হয়নি। যার কারণে সেগুলো পুড়িয়ে ফেলতে হবে না পুতে ফেলতে হবে তার ধারনা না থাকায় বর্জ্য হিসেবে সেগুলো ফেলে দেয়া হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 3 =

Back to top button
Close