বগুড়া জেলার সংবাদশাজাহানপুর

বঙ্গবন্ধু কর্ণারসহ আড়িয়া-রহিমাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকটি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করলেন দুলু

বগুড়া সংবাদ ডটকম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : নিজস্ব অর্থায়নে বঙ্গবন্ধু কর্ণার ও ৩ তলা একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন এবং সংস্কারকৃত মার্কেট ও মসজিদের ৩ তলা ভবনের ফলক উন্মোচন করে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বগুড়ার শাজাহানপুরে মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজরিত অন্যতম বিদ্যাপীঠ আড়িয়া-রহিমাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়।

শনিবার দুপুরে প্রধান অতিথি হিসেবে এসব উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আসাদুর রহমান দুলু।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সহকারি অধ্যাপক আওরঙ্গজেবের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি দিলীপ কুমার চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব তালেবুল ইসলাম, রাণীরহাট স্কুল এন্ড কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ আবু জাফর আলী, সরকারি কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজের অধ্যক্ষ এ.এইচ.এম শফিকুত তারিক। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হায়দার আলী। সিনিয়র শিক্ষিকা পারভীন আক্তার বানু’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সরকারি কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজের উপাধ্যক্ষ মাহমুদুর রহমান গোলাপ, আড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান, কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, আড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মন্টু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিন্টু মিয়া, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, অভিভাবক ও শিক্ষার্থী।

বঙ্গবন্ধু কর্নারের দেয়ালে টানানো বঙ্গবন্ধুর কয়েকটি দুর্লভ ছবি এবং বঙ্গবন্ধু সম্পর্কিত মূল্যবান বই সমৃদ্ধ লাইব্রেরি অতিথিবৃন্দকে অভিভূত করে। এছাড়া নিজস্ব অর্থায়নে ৩ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ এবং সংস্কারকৃত মার্কেট ও মসজিদের ৩ তলা ভবনের ফলক উন্মোচনের মতো উন্নয়ন কাজ স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, উন্নয়ন কাজের জন্য সরকারের মুখাপেক্ষী না হয়ে স্থানীয় ভাবে উদ্যোগ গ্রহন করলে তার বাস্তবায়ন সম্ভব। তার দৃষ্টান্ত আড়িয়া-রহিমাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের আজকের এই উন্নয়ন চিত্র। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বাবা-মা, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও গুরুজনদের সম্মান করো। তাদের আদেশ উপদেশ মেনে চলো। তাহলেই জীবনে সফলতা আসবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 + 3 =

Back to top button
Close