বগুড়া সংবাদ ডটকম (এস আই সুমন মহাস্থান প্রতিনিধিঃ) বগুড়া সদরের গোকুল চাঁদমুহা সরলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর জনৈক এক ছাত্রীকে প্রলোভন ও পরীক্ষায় ফেল করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বিদ্যালয়ের লাইব্রেরীয়ান শিক্ষক বগুড়া সদরের রজাকপুর গ্রামের সোলায়মান আলীর পুত্র ফারুক হোসেন বাবু কর্তৃক ছাত্রীর নগ্ন ভিডিও ধারন আলোচিত সেই লম্পট শিক্ষক আজ সোমবার বগুড়া আদালতে সেচ্ছায় আত্ন সমর্ম্পন করলে আদালত তাকে জামিন না মুঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরন করেছেন। বগুড়া গোকুল চাঁদমুহা উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রীর সাথে দৌহিক সম্পর্কের নগ্ন ভিডিও ধারণ আলোচিত সেই লম্পট শিক্ষকের সেচ্ছায় আদালতে আত্ন সমর্ম্পন জামিন নামুঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ ঐ ছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়,দীর্ঘ ২ বছর পূর্ব থেকে তার সাথে দৌহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে লম্পট শিক্ষক ফারুক হোসেন বাবু মোবাইলে নগ্ন ভিডিও ধারণ করে রাখে।

ভিডিওটি গত কয়েকদিন পূর্বে প্রকাশ পেলে ৮ই এপ্রিল রবিবার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা লম্পট বাবুর ফাঁসীর দাবিতে বেলা ১২ টা থেকে ১২ টা ৩০ মি: পর্যন্ত ক্লাস বর্জন করে বিদ্যালয়ের সামনে নামুজা বগুড়া সড়ক অবরোধ করে রাখে। সংবাদ পেয়ে বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর এ সার্কেল সনাতন চক্রবর্তী, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ( ওসি)এমদাদ হোসেন, ওসি (তদন্ত) কামরুজ্জামান মিয়া ও গোকুল ইউপি চেয়ারম্যান সওকাদুল ইসলাম সরকার সবুজ ঘটনাস্থলে পৌছে লম্পট শিক্ষক বাবুকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির আশ্বাস প্রদান করলে শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নেয়।

এ ব্যাপারে অত্র বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণীর ছাত্র মেহেদী হাসান, ছাত্রী মীম আক্তার, ৭ ম শ্রেণীর ছাত্রী ইশা মনির সাথে কথা বললে তারা জানান, লম্পট নারী লোভী হায়েনা লাইব্রেরীয়ান শিক্ষক ওমর ফারুক বাবুর ফাসী চাই। সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম মাহবুব মোরশেদ, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ইউপি সদস্য আলী রেজা তোতন ও প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম এর সাথে কথা বললে তারা জানান, বাবুকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এব্যাপারে ভুক্ত ভোগী ঐ ছাত্রীর পিতা সরলপুর পশ্চিম পাড়া গ্রামের ডাবলু মিয়া, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও চাঁদমুহা সরলপুর যুব সংঘের নেতৃবৃন্দের বরাবরে লম্পট বাবুর শাস্তি চেয়ে পৃথক পৃথক ২ টি আবেদন করেছিলেন ।

এব্যাপারে সচেতন অভিভাবক মহল ও এলাকাবাসী অভিযুক্ত ঐ শিক্ষককে দ্রুত গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তির দাবী জানিয়ে আসছিলেন। পুলিশ তাকে গ্রেফতারের জোর প্রচেস্টা চালিয়ে আসছিলেন ঘটনার বেশ কিছুদিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে না পারায় এলাকাবাসী ও অভিভাবক মহল ফুৃসে উঠছিলেন। এ ঘটনায় জড়িত সেই লম্পট শিক্ষক ফারুক হোসেন বাবু আজ সোমবার সেচ্ছায় বগুড়া আদালতে আত্ন সম্পর্পন করলে পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করলে কোর্ট তাকে ২ দিনের রিমান্ডে দিয়ে জামিন নামুঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরন করেছেন। এ ব্যাপারে সচেতন এলাকাবাসী ও অভিভাবক মহল লম্পট শিক্ষক ফারুক হোসেন বাবুর কঠোর শাস্তির দাবী জানান।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন