fbpx
শেরপুর

শেরপুরে জলাশয় খননকালে বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
বগুড়ার শেরপুরে প্রাচীণ একটি জলাশয় খননকালে কষ্টি পাথরের বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার (২৩জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের খোট্টাপাড়া গ্রামের বামুনিয়া নামের ওই জলাশয় থেকে মূর্তিটি উদ্ধার করা হয়। মূর্তিটির ওজন আনুমানিক ৫৪ কেজি।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার খোট্টাপাড়া গ্রামের আনিছুর রহমানের মালিকানাধীন প্রাচীণ ওই জলাশয়টি স্কেবেটার মেশিন দিয়ে পুনঃখননের কাজ চলছিল। স্থানীয় মাটি ব্যবসায়ী বলে খ্যাত আব্দুল হান্নান নামের ব্যক্তি তার লোকজন দিয়ে খনন কাজ করছিলেন। সেইসঙ্গে খনন করা মাটি ড্রাম ট্রাকের মাধ্যমে পরিবহন করে মির্জাপুর ব্র্যাক বটতলা নামক স্থানে জমি ভরাটের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। একপর্যায়ে সকালের দিকে খননকাজ চলাকালে কষ্টি পাথরের একটি বিষ্ণুমূর্তি বের হয়ে আসে।
পরে সেটি গোপন করার জন্য মাটির সঙ্গে মির্জাপুর ব্র্যাক বটতলায় জমির মধ্যে ফেলে দেয়। এসময় সেখানে উপস্থিত শরীফুল ইসলামসহ বেশকয়েকজন শিশু মূর্তিটি দেখে ফেলেন। এরপরও মাটিকাটার শ্রমিকরা মূর্তিটি নিয়ে গোপন করে রাখেন। পরবর্তীতে বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজন থানায় সংবাদ দেন। এরপর পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে মূর্তিটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান।
জানতে চাইলে শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উদ্ধার হওয়া মূর্তিটি কষ্টি পাথর কি না তা এই মুহুর্তে বলতে পারছি না। তবে এটি বিষ্ণুমূর্তি। কালো পাথরের ওই মূর্তির ওজন ৫৪ কেজি। বর্তমানে মূর্তিটি থানা হেফাজতে থাকলেও তার দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরামর্শ ও নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতœতত্ত¡ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

5 × 2 =

Back to top button
Close