বগুড়া সংবাদ ডট কম (এইচ আলিম, বগুড়া) : বগুড়া প্রেসক্লাবের আয়োজনে ও শোভা এডভান্সড টেকনোলজিস লিমিটেড এর সহযোগিতায় স্বাধীনতা দিবস টি টেন ক্রিকেট টুর্নামেন্টে মাহমুদুল আলম নয়নের দল পদ্মা একাদশকে ৮ উইকেটে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে সাগর কুমার রায়ের দল যমুনা একাদশ। এর আগে উল্লেখিত দুটি দলের সাথে পরাজি হয় আব্দুস সালাম বাবুর মেঘনা একাদশ ও এইচ আলিম এর বাঙালি একাদশ।
মঙ্গলবার সকালে বগুড়া শহীদ চাঁন্দু স্টেডিয়ামে টুর্ণামেন্টের উদ্বেধন এবং বিকালে পুরস্কার বিতরণ করেন বগুড়া জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকী। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মিলন, বগুড়ার শোভা এডভান্সড টেকনোলজিস লিমিটেড এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ আহম্মেদ কিরণ। বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন বগুড়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল আলম নয়ন।
বগুড়া প্রেসক্লাবের সদস্যদের নিয়ে অনুষ্ঠিত টুর্ণামেন্টের প্রথম খেলায় মুখোমুখি হয় মেঘনা ও পদ্মা একাদশ দল। প্রথমে ব্যাট করে মেঘনা একাদশ ৬৯ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে সাইফুল ইসলাম ১৮, আব্দুস সালাম বাবু ও রাহাত রিটু ১১ এবং শাওন ৬ রান করেন। মাসুদুর রহমান রানা দুটি উইকেট দখল করেন। জবাবে পদ্মা একাদশ মোমিন জিলুর ব্যাটে ভর করে ৯ উইকেটে জয় পায়। খেলায় জিলু অপরাজিত ৩৪, মাহমুদুল আলম নয়ন ৬ ও মাছুদুর রহমান রানা ১০ রান করেন।
দ্বিতীয় খেলায় বাঙালি একাদশ প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ৪১ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে সাখাওয়াত হোসেন জনি ২০, শাহিনুর রহমান বিমু ১২ রান সংগ্রহ করেন। খেলায় সালেহ আব্দুর রশীদ প্রবাল ২টি, শাওন রহমান ও সোয়েল রানা ১টি করে উইকেট নেন। জবাবে ৩ উইকেট হারিয়ে যমুনা একাদশ জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায়। দলের পক্ষে সাগর কুমার ৮, সোয়েল রানা ৫, শাওন রহমান ৫ রান এবং মহিত উল আলম মিলন ৪ রান করেন। সেমিফাইনালে বিজয়ী দুই দল পদ্মা ও যমুনা একাদশকে নিয়ে ফাইনাল ম্যাচে মুখোমুখি হয়। প্রথমে ব্যাট করে পদ্মা একাদশ ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৬ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে মাছুদুর রহমান রানা ৯ উইকেট, মেহেরুল সুজন ৮, রাকিব জুয়েল ৪ রান করেন। খেলায় বোলার সালেহ আব্দুর রশীদ প্রবাল ৩টি উইকেট, সোয়েল রানা ২টি করে উইকেট পান। ৪৭ রানের জয়ের টার্গেট নিয়ে খেলতে নেমে সাগর কুমার রায় নিজ দলকে চ্যাম্পিয়ন করে মাঠ ছাড়েন। তিনি ১৮ রান করেন এবং মহিত উল আলম মিলন ৯ ও শাওন রহমান ৮ রান করেন। তিনিট ম্যাচে পৃথকভাবে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন মোমিন জিলু, সালেহ আব্দুর রশীদ প্রবাল ও সাগর কুমার রায়। খেলা শেষে অতিথিবৃন্দ পুরস্কার বিতরণ করেন। খেলা পরিচালনা করেন আম্পায়ার আরমান ও রাহি। স্কোরার ছিলেন কানু। ধারা বর্ননায় ছিলেন ক্রীড়া সংগঠক জামিলুর রহমান জামিল।
উপস্থিত ছিলেন ও খেলায় অংশগ্রহণ করেন বগুড়া প্রেসক্লাবের সদস্য আখতারুজ্জামান, সমুদ্র হক, রেজাউল হাসান রানু, ঠান্ডা আজাদ, মিলন রহমান, রেজাউল হক বাবু, জেএম রউফ, মোমিনুর রশীদ সাইন, বাদল চৌধুরী, সাজ্জাদ পল্লব, কালাম আজাদ, প্রদীপ মোহন্ত, নাজমুল হুদা নাসিম, তোফাজ্জল হোসেন, আব্দুর রহমান টুলু, তানসেন আলমসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন