bograsangbad_Logoবগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) :বগুড়ার শাজাহানপুর থানায় নন্দিগ্রাম উপজেলার ভাটরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোরশেদুল বারী (৪৫)’র বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে নন্দিগ্রাম উপজেলার একই ইউনিয়নের দূর্জয়পুর গ্রামের অনার্স ২য় বর্ষের এক কলেজ ছাত্রী এই মামলা দায়ের করেন।
ভিকটিম ওই কলেজ ছাত্রী জানান, গত ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মোরশেদুল বারীর পক্ষে নির্বাচন করেন। তখন থেকেই তার সাথে সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিয়ের প্রলোভনে গড়ে উঠা শারিরিক সম্পর্কের একপর্যায়ে চেয়ারম্যান বিয়ে করতে অসম্মতি জানায়। তখন সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাইলে চেয়ারম্যান বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ঢাকা, রাজশাহী, কক্রবাজার ও বগুড়ার পর্যটনসহ বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গিয়ে ইচ্ছের বিরুদ্ধে ধর্ষণ করতে থাকে। চেয়ারম্যানের ফোন রিসিভ না করলে তিনি বাড়ি পর্যন্ত গিয়েছে। সম্মান ও জীবনের ভয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার কথা মানতে হয়েছে। একটু এদিক সেদিক হলেই নির্যাতন করতো। থানা পুলিশ দুরে থাক কাউকে কোন কিছু বললে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিত। দু’দিন আগে বগুড়ার পর্যটন মটেলে নিয়ে এসে ধর্ষণ ও নির্যাতন করে। অবশেষে নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে বগুড়া পুলিশ সুপার কার্যালয়ে গেলে পুলিশ সুপার শাজাহানপুর থানায় মামলা করতে বলে। কিন্তু শাজাহানপুর থানায় আসার পর পুলিশ মামলা নিতে তালবাহানা করলেও অবশেষে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান ওই কলেজ ছাত্রী।
এবিষয়ে ভাটরা ইউপি চেয়ারম্যান মোরশেদুল বারীর সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।
শাজাহানপুর থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মেয়েটির ডাক্তারী পরিক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন