বগুড়া সংবাদ ডট কম(নন্দীগ্রাম প্রতিনিধি মো: ফিরোজ কামাল ফারুক): :- বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার নাগর নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও মাটি কাটার মহোৎসব চলছে। প্রতিদিন ট্রাকে ট্রাকে অবৈধভাবে বালু বহনের কারণে রাস্তা মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে এবং মাধবকুড়ি গ্রামের ভিতরে কালভাট ভেঙ্গে পড়েছে। এ বালু দিয়ে রাস্তাসহ বিভিন্ন ভরাট কাজের ব্যবসা করা হচ্ছে। বালু উত্তোলনের কারণে নদীর তীরবর্তী ফসলি জমি হুমকির মুখে পড়েছে। নাগর নদীতে গভীর করে মাটি কাটা ও বালু উত্তোলনের ফলে প্রতি বছরই বর্ষা মৌসুমে তার খেসারত দিতে হয় নদী ধারের জমির মালিকদের। ক্ষতি হয় ফসলি জমির। অনেক গাছপালা যায় নদীগর্ভে।
জানা গেছে, উপজেলার গুলিয়াসহ দমদমা থেকে শুরু করে বিভিন্ন পয়েন্টে বালু তোলা হচ্ছে। বলা চলে এ ব্যবসায় তেমন একটা পুঁজি বা মূলধনের প্রয়োজন পড়ে না। তবে যাদের একটু প্রভাব রয়েছে তারাই এ ব্যবসায় জড়িত হন। তবে প্রতিদিন প্রকাশ্যে নাগর নদীর বিভিন্ন স্থানে যত্রতত্র ভাবে বালু উত্তোলন করা হলেও দেখার কেউ নেই। কৃষক সাইফুল ইসলাম জানান, এভাবে বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকলে আগামী বর্ষা মৌসুমে ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে। বালু উত্তোলন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
এপ্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা: শারমিন আখতার বলেন, কয়েকদিন আগেই গুলিয়া নাগরনদী থেকে বালু উত্তেলনের শ্যালো মেশিন নিয়ে আসা হয়েছে। এছাড়া কেউ কোথাও বালু উত্তোলন করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন