বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : গণতান্ত্রিক উপায়ে নিয়ম-নীতি মেনেই প্রকাশ্য দিবালোকে বগুড়ার শাজাহানপুরের সাজাপুর বেলপুকুর উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এক্ষেত্রে কোন যোগসাজস, ক্ষমতার দাপট ও অনিয়ম করা হয়নি। নির্বাচনী তফশীল গোপন করা হয় নাই। যথারীতি প্রচারিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার শাজাহানপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে উপরোক্ত দাবি করেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হেফাজত আরা মিরা। উক্ত সম্মেলনে তার সাথে কয়েকজন অভিভাবক, শিক্ষার্থী ও স্থানীয় এলাকাবাসি উপস্থিত ছিলেন।
লিখিত বক্তব্যে হেফাজত আরা মিরা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে যখন উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিনত করছেন, নারীর মর্যদা ও অধিকার প্রতিষ্ঠিত করছেন। তখন নাশকতা মামলার চার্জশীটভূক্ত আসামী মাঝিড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে মিথ্যা ভিত্তিহীন তথ্য উপস্থাপন করে আমার ভাবমূর্তি নষ্ট করার অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। আমি এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গকে নিয়ে ২০০০ সালে অত্র বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করি। এরপর স্থানীয়রা ৫বার আমাকে এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি নির্বাচিত করেছে। বিদ্যালয়টি যখন সঠিক পথে এগিয়ে যাচ্ছিল ঠিক তখন ২০১৩ থেকে ২০১৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত একটি কুচক্রীমহল বিদ্যালয়ে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে উন্নয়নের গতি থমকে দেয়। এরই ধারাবহিকতায় সংবাদ সম্মেলনে মিথ্যা বানোয়াট, ভিত্তিহীন, মানহানিকর তথ্য উপস্থাপন এবং রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে কুচক্রী মহলটি প্রশাসনকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছে। আমি উক্ত সংবাদ সম্মেলনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নাশকতা মামলার আসামী শফিকুল ইসলামকে অবিলম্বে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ করছি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন