বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মী করে চালকের হাত, পা ও মুখ বেঁধে গর্তে ফেলে রেখে ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার গোবিন্দপুর জোড়া ব্রীজের পূর্ব পাশে পাকুড়গাছের নীচে রাস্তার উপর এই ঘটনা ঘটে।
ছিনতাইয়ের শিকার বগুড়ার গাবতলী উপজেলার দক্ষিন বেড়েরবাড়ি সরদারপাড়ার শাজাহান আলী সরদারের পুত্র ফেরদৌস (২৮) জানান, বুধবার সন্ধার দিকে গাবতলী উপজেলার মাজবাড়ি মেলা থেকে ৫ যাত্রী শাজাহানপুর উপজেলার গোবিন্দপুর বাজারে যাওয়া এবং আসার কথা বলে অটোরিক্সা রিজার্ভ করে। পথিমধ্যে রাত সাড়ে ৭টার দিকে গোবিন্দপুর জোড়া ব্রীজের পূর্ব পাশে পাকুড়গাছের নীচে পৌছিলে আরো ৩জন লোক উঠবে বলে গাড়ী থামাতে বলে। গাড়ী থামানো মাত্র ওই ৩জন লোক এসে গাড়ী উঠে বসে এবং সবাই মিলে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মী করে পড়নের লুঙ্গি ছিড়ে হাত-পা বাধে এবং জাল দিয়ে মুখ বেঁধে রাস্তার পাশে গভীর গর্তের ভিতর নিয়ে গিয়ে ৪জন বুকের উপর চড়ে বসে ধারালো অস্ত্র ধরে থাকে। অপর ৪জন ছিনতাইকারী অটোরিক্রা নিয়ে চলে যায়। সাথে মোবাইল ও ৪-৫শ টাকাও নিয়ে যায়। এরপর ছিনতাইকারীরা মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে অটোরিক্সা নিয়ে শেরপুর পৌছার পর রাত ৯টার দিকে গর্তে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। তারা মোবাইলে কথা বলার মাঝে খায়রুল নাম উচ্চারন করে এবং শেরপুরের কথা উল্লেখ করে। নাম উচ্চারন করায় তাদের মধ্যে হালকা ঝগড়াও হয়। একপর্যায়ে ছিনতাইকারীরা চলে যাওয়ার পর অনেক কষ্টে রাস্তার উপর উঠে আসা মাত্র আমরুল ইউনিয়ন পরিষদের একজন সদস্য ২জন আরোহী নিয়ে মটরসাইকেল যোগে ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে রাস্তার পাশে তাকে পড়ে থাকতে দেখে মটরসাইকেল থামায় এবং বাধন খুলে দিয়ে ঘটনা শুনে বিভিন্ন স্থানে মোবাইল করে ছিনতাইয়ের ঘটনা জানায়। এঘটনায় শাজাহানপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ছিনতাইয়ের শিকার ফেরদৌস।
থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি জেনেছেন এবং ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন