বগুড়া সংবাদ ডট কম : বগুড়ার নন্দীগ্রামে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের প্রতিবাদের মুখে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের র‌্যালি থেকে চলে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন, একাধিক নাশকতার মামলার আসামী, জামায়াত নেতা, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল। গত শনিবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে র‌্যালি বের করা হয়েছিল। তবে নন্দীগ্রাম উপজেলা জামায়াতের সাবেক আমীর নুরুল ইসলাম মন্ডল জানান, র‌্যালি ছেড়ে যাবার ঘটনা কিছুটা সত্য ও কিছুটা মিথ্যা রয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে জেলার অন্যান্য স্থানের মত নন্দীগ্রাম উপজেলা প্রশাসন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল সোয়া ৯টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আখতারের নেতৃত্বে র‌্যালির প্রস্তুতি শুরু হয়। তখন উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলা জামায়াতের সাবেক আমীর একাধিক নাশকতা মামলার আসামী নুরুল ইসলাম মন্ডল র‌্যালিতে অংশ নেন। তাকে র‌্যালিতে দেখে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে প্রচন্ড ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তখন উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ শুরু করেন। সকলে বলতে থাকেন, উপজেলা চেয়ারম্যান, জামায়াতের আমীর, একাধিক নাশকতা মামলার আসামী নূরুল ইসলাম মন্ডল র‌্যালিতে থাকলে আওয়ামী লীগের কোন নেতাকর্মী অংশ নিবেনা। এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আখতারকে অবহিত করেন। এর পরপরই নূরুল ইসলাম মন্ডল র‌্যালি ছেড়ে চলে যান। এতে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে স্বস্তি দেখা দেয়। তারা স্বতস্ফুর্তভাবে র‌্যালিতে অংশ নেন। নেতাকর্মীরা জানান, শনিবার প্রতিবাদের মুখে তিনি বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের র‌্যালি ছেড়ে যেতে বাধ্য হন। পরবর্তীতে জাতীয় কোন দিবসের কর্মসূচিতে জামায়াত নেতা নাশকতার মামলার আসামী উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল থাকলে আওয়ামী লীগের কেউ সেখানে যাবেনা। এবিষয়ে জামায়াত নেতা উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের র‌্যালি থেকে চলে যাবার ব্যাপারে কোন মন্তব্য না করে বলেন, এর কিছুটা সত্য ও কিছুটা মিথ্যা।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন