Breaking News

ধুনটে ত্রান না পেয়ে বন্যার্তদের মাঝে ক্ষোভ

বগুড়া সংবাদ ডটকম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : হুনছিলাম (শুনছিলাম) আমাগ্যারে দেখবার ন্যাহি এমপি প্রার্থী আসতেছে। ভাবছিলাম ভোটের আগে আমাগ্যারে দেখতে আইসা কিছু দিয়া যাইব। কিন্তু কিছুই তো পাইলাম না বাহে এভাবেই আক্ষেপ করে কথাগুলো বলছিলেন, বগুড়ার ধুনটের ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের বন্যা কবলিত ছকিতন বেওয়া, আমেনা বেগম, জুলেখা বেগম ও তারা চাঁন মিয়া সহ বেশ কিছু অসহায় মানুষ।
শুক্রবার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে আসবেন শেরপুর-ধুনট আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু। আর এ সংবাদ পেয়েই সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অপেক্ষায় ছিল বানভাসি মানুষেরা। আশায় বুক বেধে ছিল তাদের। হয়তো আজ ভাগ্যে জুটবে কিছু ত্রান। কিন্তু দুপরের দিকে যখন এমপি প্রার্থী এলাকায় পৌছালেন তখন বন্যা কবলিত মানুষের আশা নিরাশায় পরিনত হলো। মনে ক্ষোভ নিয়ে খালি হাতে ফিরে গেলেন বানভাসি মানুষেরা। এতে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতাদের মাঝেও সমালোচনার ঝড় উঠেছে।
জানাগেছে, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে বগুড়ার ধুনটে যমুনা নদীর পানির বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৫৮ সেন্টিমিটার উপর দিকে প্রবাহিত হচ্ছে। আকষ্যিক পানি বৃদ্ধিতে ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের প্রায় ১০টি গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে প্রায় ২ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। অনেকে পানিবন্দি অবস্থায় ও বাঁধে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। তবে সরকারী ও বেসরকারী ভাবে যে ত্রান সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল বলে জানিয়েছে বানভাসিরা। বন্যার কারনে কোন রোজগারও নেই ওই সব এলাকার মানুষদের। তাইতো উর্দ্ধতন কারো আসার সংবাদ পেলেই ত্রানের অপেক্ষায় থাকে বানভাসি মানুষেরা। শুক্রবার দুপুরে দিকে ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নে বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে যান ধুনট-শেরপুর আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মজিবর রহমান মজনু। একজন এমপি প্রার্থীর আগমন উপলক্ষে বন্যার্ত মানুষেরা সকাল থেকেই ত্রানের অপেক্ষায় থাকে। কিন্তু তিনি বন্যা কবলিত এলাকায় পৌছার পর শুধু বন্যার্তদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন।
গোসাইবাড়ী ও ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কয়েক নেতা বলেন, বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু ধুনট-শেরপুর আসনের আওয়ামীলীগের একজন মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি বন্যাকবলিত এলাকায় আসবেন কিন্তু কোন ত্রান দিবেন না এ কারনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন না। শুধু উপজেলা আওয়ামীলীগের কতিপয় কিছু নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। তবে আগামী নির্বাচনে কে মনোনয়ন পাবেন এটা বড় কথা নয়। কিন্তু আওয়ামীলীগের একজন মনোনয়ন প্রত্যাশী এমপি প্রার্থী খালি হাতে বন্যার্তদের দেখতে গেলেন এটা বর্তমান সরকারের জন্য মোটেই ভাল কিছু নয়। একজন এমপি প্রার্থীর আগমন উপলক্ষে বন্যার্তরা আশায় ছিল। ত্রান না পেয়ে অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।