Breaking News

বগুড়া-৪ আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী কামাল উদ্দিন কবিরাজ সংবাদ সম্মেলনে ৬ দফা দাবী বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিলেন

বগুড়া সংবাদ ডটকম (কাহালু প্রতিনিধি এম এ মতিন) : বগুড়া-৪,কাহালু-নন্দীগ্রাম এলাকার আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ কামাল উদ্দিন কবিরাজ এম পি হতে পারলে ৬ দফা দাবী বাস্তবায়ন করার জন্য সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন। কাহালু মডেল প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে কাহালু বাজারস্থ বেলাল উদ্দিন কবিরাজ সুপার মার্কেটে তার নিজস্ব কার্যালয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও কাহালু-নন্দীগ্রাম এলাকার আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ কামাল উদ্দিন কবিরাজ। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ১৯৫৪ সাল থেকে শুরু করে ২০১৭ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ৬৩ বছরে বাংলাদেশে যে কয়টি জাতীয় সংসদ নির্বাচন হয়েছে (১৯৫৪, ১৯৭০, ১৯৭৩, ১৯৭৯, ১৯৮৬, ১৯৮৮, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮, ২০১৪ সাল) কোন সংসদ নির্বাচনে কাহালু উপজেলার কোন ব্যক্তিই নৌকা প্রতীক নিয়ে পদপ্রার্থী হননি বা কোন প্রার্থীকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়নি। কাহালু উপজেলা বৃহৎ একটি উপজেলা। ৬৩ বছরে যেহেতু আমরা নৌকা প্রতীক পাইনি এইবার আমি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চাই। আর আমি যদি আপনাদের ভোটে এম পি পদে নির্বাচিত হতে পারি তাহলে নিম্নের ৬ দফা দাবী বাস্তবায়নের জন্য বেশী গুরুত্ব দেবো। (১) শিক্ষা ব্যবস্থা ঃ শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। কোনো এলাকায় উন্নয়নের জন্য পূর্বশর্ত হলো শিক্ষিত সমাজ গড়ে তোলা। শিক্ষা ছাড়া কোনো সমাজ উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছাতে পারে না। কাহালু উপজেলার শতভাগ শিক্ষিত করে নিরক্ষরমুক্ত উপজেলা গড়ার লক্ষ্যেকাজ করা হবে। সেইজন্য স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা সমুহের অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা এবং শিক্ষকদের প্রশিক্ষণেরব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। শিক্ষার হার মানসম্মত ভাবে বাড়ানোর ব্যবস্থা করা এবং শিক্ষা ব্যবস্থাকে উন্নত করে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বেকার সমস্যাসমাধানের চেষ্টা করা হবে। (২) চিকিৎসা ব্যবস্থা ঃ কাহালু উপজেলা বর্তমানে চিকিৎসা ব্যবস্থার নাজুক অবস্থা রয়েছে। চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নতিরলক্ষ্যে কাহালু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে আধুনিকায়নের ব্যবস্থা করা ও কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্য পরিধি বৃদ্ধিকরণ এবং আধুনিকায়ন করা হবে। যার মাধ্যমে সর্বত্র জনগণ স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হয়। প্রয়োজনে দরিদ্রদের সূচীকিৎসার জন্য “ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প” করা হবে। (৩) যোগাযোগ ব্যবস্থা ঃ যে দেশের যোগযোগ ব্যবস্থা যতো ভালো সে দেশতত উন্নত। তাই উন্নত দেশ গড়তে হলে যোগাযোগ ব্যবস্থার চাই উন্নয়ন। বগুড়া জেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা হচ্ছে কাহালু উপজেলা। আর এই কাহালু উপজেলায় বেশকিছু গুরুত্বপূর্ন রাস্তা রয়েছে। সেসব রাস্তার মধ্যে পিচঢালা রাস্তা সংস্কার করা এবং নতুন রাস্তা নির্মাণ বরে পাকাকরণ করা হবে। যাতে করে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সার্ধিত হয়। (৪) কৃষি ব্যবস্থা ঃ বাংলাদেশের ৮৫ ভাগ মানুষ কৃষির উপর নির্ভরশীল। এর মধ্যে কাহালু উপজেলাও একটি কৃষিনির্ভর উপজেলা। এই উপজেলার কৃষক কর্তৃক উৎপাদিত কৃষিপণ্যের বাজারজাত করণে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কৃষকদের উৎপাদিত কৃষিপণ্যের মূল্যেবৃদ্ধির লক্ষ্যে তৎপর হতে হবে। (৫) বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ঃ আধুনিক বিশ্বায়নের যুগে বিদ্যুতের বিকল্প নেই। সেসব গ্রামে সংযোগ দেয়া হয়নি তা বিদ্যুৎায়ন করা এবং লোডশেডিং সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। (৬) জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, নাশকতা ও মাদক নির্মূল করার চেষ্টা করবো ঃ বাংলাদেশে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, ও মাদক একটি ভয়াবহ সামাজিক ব্যধিতে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ সরকার এই ভয়াবহ পরিস্থিতি হতে মুক্তির জন্য বিশেষ ভাবেকাজ করে যাচ্ছে। আমাদের কাহালু উপজেলাও এই জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস ও মাদক এর ছোবল হতে মুক্ত নয়। তাই সমাজকে জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, নাশকতা ও মাদক মুক্ত করার জন্য ব্যবস্থা করতে হবে। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে বগুড়ার কাহালু মডেল প্রেসক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।