Breaking News

২০১৩-১৪ সালে জীবনের ঝুকি নিয়ে কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলায় হরতাল অবরোধ কর্মসূচীতে অংশ গ্রহণ করেছিলেন বিএনপিনেতা আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন

বগুড়া সংবাদ ডট কম (কাহালু প্রতিনিধি এম এ মতিন) : ২০১৩-১৪ সালে জীবনের ঝুকি নিয়ে বগুড়ার কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলায় হরতাল অবরোধ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেছেলিন বিএনপিনেতা বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মোঃ মোশারফ হোসেন।২০১৩-১৪ সালে যখন নির্দলীয় তত্তাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন এবং একদলীয় নির্বাচন বাতিলের দাবীতে সারা বাংলাদেশে ২০ দলীয় জোটের ডাকা হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচী চলছিল তখন কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলার বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও ২০ দলীয় জোটের অন্যান্য শরীক দলের সঙ্গে জীবনের ঝুকি নিয়ে কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলায় প্রায় ৩৫/৪০টি হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেছিলেন বগুড়া জেলা ও নন্দীগ্রাম উপজেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী সদস্য, কেন্দ্রীয় কোকো স্মৃতি পরিষদের যুগ্ন আহবায়ক, কেন্দ্রীয় জিয়া শিশু কিশোর পরিষদ এর সহ-সভাপতি ও কাহালু-নন্দীগ্রাম এলাকার বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী বিএনপির দুঃসময়ের কান্ডারী বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন। উক্ত হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন কাহালু উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কাজী আব্দুর রশিদ, সদস্য সচিব অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম, সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক তোফাজ্জল হোসেন আজাদ, কাহালু পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আবুল কালাম আজাদ, রফিকুল ইসলাম ফজলু, রাম চন্দ্র মহন্ত, নন্দীগ্রাম উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ কে আজাদ, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী, নন্দীগ্রাম পৌর বিএনপির সভাপতি আব্দুর রহিম সহ কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলা/পৌর ও ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের শত শত নেতাকর্মী ও ২০ দলীয় জোটের অন্যান্য শরিক দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকবৃন্দ। শুধু তাই নয় তারপরও তিনি ঘরে বসে না থেকে কাহালু-নন্দীগ্রাম উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে সবসময় যোগাযোগ করছেন এবং তাদের যে কোন প্রোগ্রামে উপস্থিত হচ্ছেন এবং সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। কাহালু-নন্দীগ্রাম উপজেলার তৃর্ণমূল পর্যায়ের প্রায় ৫ শতাধিক নেতাকর্মীর সাথে কথা বলা হলে তারা জানান, বগুড়া-৪, কাহালু-নন্দীগ্রাম আসন ফিরে পেতে ও সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মোঃ মোশারফ হোসেন এর মতো নেতার দরকার।