বগুড়া সংবাদ ডটকম (মহাস্থান প্রতিনিধি এস আই সুমন) : বগুড়ার সাবগ্রামে একটি হিন্দু পরিবারের বসত বাড়ি পুড়ে ভস্মিভূত,নগদ টাকা,স্বর্ণালঙ্কার,আসবাব পত্র পুড়ে গিয়ে অনুমান ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি, সদর উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে নগদ অর্থ, ঢেউটিন, কম্বল ও শুকনা খাবার প্রদান করা হয়।
সরেজমিনে ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দিবাগত রাত অনুমান ৩ টায় বগুড়া সদর উপজেলার সাবগ্রাম ইউনিয়নের সাবগ্রাম দক্ষিন পাড়া গ্রামের মৃত কয়লাস এর পুত্র কিশোর লাল এর বসত বাড়িতে আগুন লাগে, এতে করে ৩টি টিনসেড রুম,আসবাব পত্র সহ অনুমান ৪/৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়।আগুন লাগার সময় বাহির থেকে দরজা লাগানো ছিল বলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার জানান। সে কারনে রুমে থাকা আসবাব পত্র, নগদ টাকা পয়সা,স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ছেলে মেয়ের পরীক্ষার সনদ পত্র বই পুস্তক সহ পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি পুড়ে যায়। এ সংবাদ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আজগর তালুকদার হেনা ও নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ হামিদুল ইসলাম জানতে পেরে বুধবার বিকালে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে গিয়ে শান্তনা দেন এবং নগদ ১৬ হাজার টাকা, ২ বান্ডিল ঢেউটিন, শুকনা খাবার ও কম্বল প্রদান করেন এবং পর্যায়ক্রমে তাদের সকল সমস্যা সমাধানের জন্য উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দেন। কিশোর লালের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে প্রমিলা রানী দাস ও বগুড়া জেলা স্কুলের ৯ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী নয়ন কুমার দাসকে লেখাপড়ার সামগ্রী প্রদানেরও আশ্বাস প্রদান করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সালেহ নয়ন, শাখারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান শফিক, রাজাপুর ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদুর রহমান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ প্রমুখ সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন