বগুড়া সংবাদ ডট কম (গাবতলী প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম লাকী) : বগুড়ার গাবতলী উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় থানায় একটি বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান মোরশেদ মিল্টনকে প্রধান করে পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম, থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক নতুনসহ বিএনপির ৩৭জনের নাম উল্লেখসহ ৪০/৫০জনকে অজ্ঞাত করে গতকাল মঙ্গলবার মামলাটি দায়ের করেন পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক আজিজার রহমান পাইকার। মামলার পরপরই পুলিশ অভিযুক্ত ২জনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। এরা হলো, পৌর যুবদলের আহবায়ক ও পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুনুর রশিদ হারুন, বিএনপি নেতা ডাঃ জাহাঙ্গীর আলম, বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের কালাইহাটা গ্রামের বিশা প্রাং এর ছেলে আয়নুল হক (৪০) এবং নশিপুর ইউনিয়নের বাগবাড়ী গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে সাদেকুল ইসলাম (৩৭)। মামলায় অন্যান্য অভিযুক্তরা হলো, থানা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক, কাগইল ইউপির চেয়ারম্যান আগা নিহাল বিন জলিল তপন, পৌর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সাহিদুল ইসলাম, সাবেক কাউন্সিলর সাজেদুল আলম রাসেল ও শ্যামল সরকার, পৌর স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক দীপু, বিশিষ্ট পশু চিকিৎসক শফিকুল ইসলাম ভুট্টো, মুঞ্জু মেম্বার, নুরুল্লাহ আকন্দ, মাসুদ রানা, আমিনুল ইসলাম, আনিছার রহমান, তাজুল, শাওনসহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অন্যন্য সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, আগামী ৮ফেব্রুয়ারী বেগম খালেদা জিয়ার ‘জিয়া অরফানেন্স ট্রাষ্ট দূর্নীতি’ মামলার রায়কে কেন্দ্র বিএনপির বিশৃঙ্খলা প্রতিহতের লক্ষ্যে গত রবিবার রাত প্রায় ৯টায় উপজেলা আ’লীগের কার্যালয়ে বৈঠক চলছিল। এমতবস্থায় পূর্বপরিকল্পিতভাবে আ’লীগ অফিসের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ করা হয়।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন