বগুড়া সংবাদ ডট কম (মোশাররফ হোসেন মজনু, সোনাতলা) : জেলার সোনাতলায় নাশকতা বা অন্তর্ঘাতি চেষ্টার অভিযোগে থানা পুলিশ ও অতিরিক্ত ফোর্স বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিএনপির ৯ জনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। থানার এসআই সোহেল রানা জানান, গত সোমবার দিনগত রাতে গ্রেফতার করা হয়েছে ৭ জনকে। তারা হ’ল সোনাতলা পৌর এলাকার ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ও গড়ফতেপুর গ্রামের মৃত আব্দুল গফুর আকন্দের ছেলে গোলাম আজম মুঞ্জু (৩৫), জোড়গাছা ইউনিয়নের ওয়ার্ড বিএনপির সহ-সভাপতি ও চরপাড়া গ্রামের ইলিয়াছ উদ্দিনের ছেলে মিলন (৩২), বালুয়া ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ও রশিনাবাড়ি গ্রামের জাফর আলীর ছেলে বিটুল (৪০),সোনাতলা সদর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ও চামুরপাড়া গ্রামের মৃত কাজেম উদ্দিনের ছেলে বাবু মিয়া (৬০), পাকুল্যা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড বিএনপির সহ-সভাপতি ও হুয়াকুয়া গ্রামের প্রাক্তন মেম্বর আব্দুল লতিফ (৪৫), বালুয়া ইউনিয়ন বিএনপি নেত ও কুশারঘোপ গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে কুখ্যাত গরু চোর রুবেল ওরফে কাইল্যা (৪০) এবং একই ইউনিয়নের বিএনপি নেতা ও চকসৈয়দপুর গ্রামের আসাদুলের ছেলে রাসেল মিয়া (২২)। এর আগের দিন গভীর রাতে কানুপুর সরকারি প্রাইমারী স্কুল মাঠ থেকে বালুয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সহ-সভাপতি ও বড় বালুয়া গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে ওমর ফারুক (৩০) এবং বালুয়া ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উত্তর আটকরিয়া গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে ফজলুল হক (৫০)-কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সকলকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শরিফুল ইসলাম জানান, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলার রায়কে সামনে রেখে এলাকায় নাশকতা বা অন্তর্ঘাত করার চেষ্টা করছিল বিধায় তাদেক গ্রেফতার করা হয়েছে। যাতে বিএনপিসহ সরকার বিরোধী কোনো দলের কেউ সোনাতলার কোথাও নাশকতা সৃষ্টি বা অন্তর্ঘাত করতে না পারে অথবা সোনাতলার বাইরে কোথাও গিয়ে নাশকতা সৃষ্টি করতে না পারে এজন্য বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে যানবাহনে তল্লাশি ও গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন