বগুড়া সংবাদ ডট কম (শিবগঞ্জ প্রতিনিধি রশিদুর রহমান রানা) : বগুড়ার মহাস্থানে রুপালী ব্যাংক বাংলাদেশ লি: এর কয়ে কোটি টাকা নিয়ে উধাও হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মহাস্থানে রুপালী ব্যাংক বাংলাদেশ লি: এর ম্যানেজার সোনাতলা উপজেলার আগুনিয়াতাইড় গ্রামের মনতেজার রহমান এর পুত্র জোবায়েনুর রহমান স্বরণ রবিবার ব্যাংকে এলে সকাল এগারোটায় ব্যাংকের পার্শ্বে চা পান করার কথা বলে অফিস থেকে বের হয়, তিনি পরে আর নিজ অফিসে ফিরে আসেনি। একাধিকবার তার ব্যবহৃত ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এব্যাপারে রবিবার রাত অনুমান দশটায় ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার আব্দুল মজিদ মন্ডল বাদী হয়ে বগুড়া সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। এ সংবাদ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে গত সোমবার ব্যাংকে গ্রাহকেরা তাদের হিসাব দেখার চেষ্টা করে এবং অনেকেই জানতে পারেন তাদের হিসাবের গড়মিল পাওয়া যায়। কারো হিসাবেই নির্দিষ্ট পরিমান টাকা জমা নেই। এতে করে প্রায় কয়েক কোটি টাকার গড়মিল সন্ধান পাওয়া যায়। বিষয়টি ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ জানতে পেরে চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। কমিটির সদস্যগণ হলো এম এম জি তোফায়েল, সুলতান মাহমুদ, শাহীন মাহমুদ ও চিরঞ্জিত চক্রবর্তী। তাদের সাথে কথা বললে তারা জানান, প্রতিটি হিসাব যাচাই করা হচ্ছে। কোন গ্রাহকের কত টাকা হিসাবে ঘাটতি রয়েছে তা যাচাইয়ের মাধ্যমে জানা যাবে। ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার আব্দুল মজিদ মন্ডলের সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিভিন্ন হিসাবে কিছু গড়মিল পরিলক্ষিত হচ্ছে। রাজশাহী ডিভিশনাল অফিস থেকে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে প্রকৃত তথ্য জানা যাবে। এবিষয়ে উক্ত ব্যাংকের গ্রাহক মহাস্থান এলাকার মেসার্স মুক্তি ফল ও বীজ ভান্ডার এর প্রোপাইটার রহেদুল ইসলাম এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমার ব্যাংক হিসাবে পনেরো লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকার সঠিক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। আমার মতো অনেক ব্যবসায়ী ও আমানতকারীদের অবস্থাও একই রকম। এ দিকে মহাস্থান মাজার কমিটির একটি সূত্র থেকে জানা যায়, মাজার একাউন্টের প্রায় ৮৩ লক্ষ টাকা গড় মিল রয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন