বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি টিআইএম নূরুন্নবী তারিকের গাড়ী ভাংচুরের চেষ্টা করাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার রাত ৮টায় ধুনট বাজারের জিরোপয়েন্ট এলাকায় এঘটনা ঘটে।
স্থানীয়সূত্রে জানাগেছে, শুক্রবার রাতে উপজেলা পরিষদ সড়কের দলীয় কার্যালয়ের সামনে টিআইএম নূরুন্নবী তারিক তার প্রাইভেট কার রেখে দলীয় নেতাদের নিয়ে পাশ্ববর্তী একটি চায়ের দোকানে আলাপ করছিলেন। এসময় দলীয় কার্যালয়ের সামনে আওয়ামীলীগ সভাপতির গাড়ী দেখে আওয়ামীলীগের একটি গ্রুপের নেতাকর্মীরা ক্ষুদ্ধ হয়। তারা সভাপতির ড্রাইভারকে ধাক্কা মেরে গাড়ী ভাংচুরের চেষ্টা করলে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। প্রায় এক ঘন্টা ব্যাপি ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় অনেকে দোকানপাঠ বন্ধ করে রাখে এবং লোকজন ছোটাছুটি করতে থাকে। পরে সংবাদ পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক টিআইএম নূরুন্নবী তারিক জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্যের সাথে রাজনৈতিক মতবিরোধ রয়েছে। একারনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম খান স্থানীয় সংসদ সদস্যের কাছে আস্থাভাজন প্রমান করতে সে দীর্ঘদিন যাবত আমার সাথে বিরোধের চেষ্টা করে আসছিল। শুক্রবার দলীয় কার্যালয়ের সামনে আমার গাড়ী দেখে শরিফুল ইসলাম খান ও তার লেকাজন হঠাৎ ক্ষুদ্ধ হয়ে আমার ড্রাইভারকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে গাড়ী ভাংচুরের চেষ্টা করে। এসময় আমি সহ দলীয় নেতাকর্মীরা বাধা দিলে তারা আমাদের ওপর লাঠিশোডা নিয়ে হামলা চালায়।
ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম খান বলেন, বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের কর্মীসভায় যোগদান উপলক্ষে ধুনট উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে প্রস্তুতিমূলক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। কিন্তু তিনি ওই সভায় উপস্থিত না হয়ে উল্টো নেতাকর্মীদের অংশগ্রহনে বাধা প্রদান করেন। বিষয়টি দলীয় নেতাকর্মীরা তার কাছে শুনতে গেলে তিনি তাদের ওপর চড়াও হয়। তবে তার ওপর কোন হামলা বা গাড়ী ভাংচুরের চেষ্টা করা হয়নি।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) ফারুকুল ইসলাম বলেন, সংবাদ পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে। তবে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন