বগুড়া সংবাদ ডট কম : ‘‘তিনি বগুড়ার এসেনসিয়াল ড্রাগস প্লান্টের সাবেক কর্মি, এক সময় ব্যবসা করে টাকা পয়সা ভালোই কামাই এবং বাড়ি গাড়ীও করেছিলেন। কিন্তু তিনি সব হারিয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়ান, রেল ষ্টেশনে বা মাজারে মাজারে ঘুমিয়ে রাত কাটান। আর এই দুর্গতির জন্য দায়ী তার স্ত্রী , কন্যা অন্যান্য আত্মীয় স্বজন’’ বলে জানালেন বগুড়া শহরের ঠনঠনিয়া পশ্চিম ব্যাংক পাড়ার মরহুম আহম্মদ প্রাং এর পুত্র কামাল হোসেন।
রোববার দুপুরে বগুড়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কামাল হোসেন আরো বলেন, তার সম্পত্তি হাতিয়ে নিতেই তার স্ত্রী সহ অন্যান্য সজনরা তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন প্রমান করতে তাকে গোপনে আটকে রেখে শারীরীক ও মানষিক নির্যাত করেছে। চিকিৎসকরাও চিকিৎসার নামে তাকে পঙ্গু করে দিয়েছে। স্থানীয় কমিশনার / জনপ্রতিনিধিদের কাছেও সুবিচার পাননি তিনি। তাই সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার মনোবেদনার কথা তুলে ধরলেন এই আশায় প্রশাসন বা মানবাধিকার সংগঠন গুলো হয়তো তার সহযোগিতায় এগিয়ে আসবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন