বগুড়া সংবাদ ডট কম (সারিয়াকান্দি প্রতিনিধি রাহেনূর ইসলাম স্বাধীন) : কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহা সচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, বন্যা দুর্গত এলাকার মানুষের দু:খ দুর্দশা দেখার জন্য আপনাদের মাঝে এসেছি। সারা দেশের বন্যা উপদ্রপ এলাকা ঘুরে দেখেছি সরকার আপনাদের পাশে না থেকে তারা লুটপাট ও ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে ব্যস্ত রয়েছে।
তিনি বলেন, এই এলাকায় খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়া বাঁধ নির্মাণ করে না দিয়ে আপনারা এখানে বসবাস করতে পারতেন না। বিএনপি সরকারের সময় নির্মিত বাঁধ যমুনা নদীর ভাঙনের কবল থেকে এই এলাকাকে রক্ষা করেছে।
তিনি বলেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব দেশ নায়ক তারেক রহমান শারীরিক ভাবে অসুস্থ থাকায় তিনি আপনাদের পাশে এসে দাঁড়াতে পারেনি। আমাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে দেশের বন্যাক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে। তারেক রহমান দেশে আসার জন্য আকুল হয়ে আছেন। কিন্তু তিনি অসুস্থ থাকায় এই মুহুর্তে দেশে আসতে পারছেন না। যত দ্রুত সম্ভব তিনি দেশে ফিরে এসে যাতে করে দেশের কাজে আত্মনিয়োগ করতে পারেন। আপনারা খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়ার জন্য দোয়া করবেন। বিএনপি সবসময় দেশের মানুষের সুখে দুখে পাশে থাকে। আগামীতেও আপনাদের পাশে থেকে সেবা করে যেতে চাই।
তিনি রবিবার সকাল ১১টায় বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার বড়ইকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ঢাকা এর নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডনারের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সাবেক এমপি হেলালুজ্জামান তালুকদার, বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন, জেলা বিএনপির উপদেষ্টা ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য শোকরানা, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন বগুড়ার কো-অর্ডিনেটর ডা. শাহ মোঃ শাহজাহান আলী। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি এবিএম রেজাউল করিম মতিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শাহ মেহেদী হাসান হিমু, সারিয়াকান্দি উপজেলা বিএনপির সভাপতি সুজাউদৌলা সনজু, সাধারণ সম্পাদক লুৎফুল হায়দার রুমি, সিরাজুল ইসলাম, পৌর বিএনপির শাহজাহান আলী মুকুল, লুৎফর রহমান, মতিউর রহমান মতি, আব্দুর রাজ্জাক, শামীম আহম্মেদ, খায়রুল ইসলাম বিশু প্রমুখ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন