বগুড়া সংবাদ ডট কম :মহান আাল্লাহর রহমত কামনা ও মুসলিম উম্মার শান্তি, সমৃদ্ধি কামনায় আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো তিনদিন ব্যাপী বগুড়ার আঞ্চলিক ইজতেমা । তাবলীগ জামায়াতের উদ্ধোগে আয়োজিত উত্তরের প্রবেশ দ্বারখ্যাত প্রন্ডুনগরী বগুড়ার বারপুর ঝোপগাড়িতে দ্বিতীয় দফার এই বিশ্ব ইজতেমা শুরু হয় গত বৃহস্পতিবার । গেল বছরে নভেম্বর বগুড়ার একই স্থানে তাবলিক জামাত এর প্রথম ইজতেমা অনুষ্ঠিতহয়েছিল।
৩স্তরের কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন পরিবেশে পুলিশ ও আইন শৃংখলা বাহিনীর নজরদারীর মধ্যদিয়ে ৩ দিন ব্যাপি ইজতেমা সম্পন্ন হয়।
শনিবার লাখো মুসল্লির অংশগ্রহনে আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠেছিল গোটা ইজতেমা ময়দান। আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে সকাল থেকেই জন¯্রােত ছিল ইজতেমা মাঠমুখি। জেলার বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে সৌদি আরব, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ,অস্ট্রেলিয়া, মরক্কো এবং চীন সহ সহ বিভিন্ন দেশের বিদেশি মেহমানরা ছাড়া বগুড়ায় ইজতেমায় অংশ নেয় নারী পুরুষ, আবাল বৃদ্ধ বনিতা সহ বিভিন্ন বয়সী কয়েক লাখ মানুষ মোনাজাতে অংশ নেয়। এছাড়াও অংশ নেয় বিভিন্ন শ্রেনী পেশার কয়েক লাখ ধর্মপ্রান মুসলিম। গতবার ইজতেমা আড়াই থেকে তিন লাখ মুসুল্লীদের আগমন ঘটলেও এবার এ সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পায় দ্বিগুন এমন ধারনা প্রকাশ করছেন আয়োজকরা ।
ইজতেমার শেষ দিনে কোথাও ছিলনা তিলধরনের ঠাই ইজতেমা মাঠ ছাড়িয়ে কয়েক কিঃমিঃ মহাসড়ক এবং আশে পাশের ফাঁকা স্থান, বাড়ী ছাদ, বিভিন্ন স্থাপনা, প্রতিষ্ঠান চত্বরেও মানুষের উপস্থিতি ছিল ব্যাপক। ইজতেমাস্থল ছাড়িয়ে আশ পাশের কয়েক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে মুনাজাতে অংশ নেয় দূর দুরান্ত থেকে আসা মুসল্লিগন। বেলা ১২ টায় আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দ্বিতীয় দফায় জেলা পর্যায়ে এই বিশ্ব ইজতেমা।
এদিকে ইজতেমার আয়োজনকে লক্ষ রেখে শুরু থেকেই ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে জেলা পুলিশ প্রশাসন। বগুড়া পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফ মন্ডল,সিনিয়র এএসপি মশিউর (শিবগঞ্জ-সোনাতলা সার্কেল)এএসপি(সদর)আনোয়ার হোসেনের সার্বিক তত্বতাবধানে জেলা পুলিশ ও বগুড়া সদর থানা বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থায় তাদের কার্যক্রম অব্যাহত ভাবে চালায় । প্রায় ৬ শত পোষাকধারী পুলিশ বাহিনীর সদস্য ছাড়াও জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এবং অন্যান্য এজেন্সির লোকজন পুরো ইজতেমার মাঠ ঘিরে কমপক্ষে ৩স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরী করে । নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে মধ্যে স্থাপন করা হয় একাধিক পর্যবেক্ষন ও নিরাপত্তা চৌকি । বসানো হয় সিসি ক্যামেরা ।
মোনাজাতে দেশ জাতির মঙ্গল কামনাসহ মুসলিম উম্মার শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। 

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন