বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনট উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের জয়শিং ঘাট এলাকার বাঙ্গালী নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করা হচ্ছে। এতে নদীর তীরবর্তী ২০টি পরিবারে বসতবাড়ী ও ভিটেমাটি সহ ফসলী জমি ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে। তবে এসব বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে অবগত করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না স্থানীয় এলাকাবাসী।
সরেজমিনে জানাগেছে, উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের জয়শিং ঘাটের বাঙ্গালী নদীতে জয়শিং গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে ফরহাদ হোসেন গত দুই মাস যাবত নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। সেই বালু পাইপের সাহায্যে নদীর পশ্চিমপাশে ফসলী জমিতে ফেলা হচ্ছে। সেখান থেকে প্রতি ট্রাক বালু বিক্রি করা হচ্ছে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকায়। তবে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করলেও ‘জয়শিং ফেরিঘাট বালু পয়েন্ট’ নামে ক্যাশ মেমো প্রদান করা হচ্ছে। এদিকে শুষ্ক মৌসুমে নদীতে পানি কম থাকায় এবং নদীর গভীর তলদেশ থেকে এভাবে ড্রেজার মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলনের কারনে নদীর গভীরতা সৃষ্টি হয়ে নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারন করেছে। এতে নদীর তীরবর্তী ২০টি পরিবারের বসতবাড়ী সহ ফসলী জমিগুলো হুমকির মুখে পড়েছে।
এবিষয়ে জয়শিং গ্রামের আজিবর রহমান ও হাসমত আলী সহ অনেকে আক্ষেপ করে বলেন, ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে বাঙ্গালী নদীতে এভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের কারনে শুষ্ক মৌসুমে নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারন করেছে। নদীর তীরবর্তী তাদের বসতঘর গুলো এখন হুমকির মুখে পড়েছে। তবে এসব বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে অভিযোগ দিয়েও কোন লাভ হয়নি বলে জানান তারা।
নিমগাছী ইউনিয়নের বেড়েরবাড়ী সরকারী বালু মহলের ইজারাদার সাবেক ইউপি সদস্য নবাব আলী বলেন, আমরা সরকারীভাবে বালু মহল ইজারা নিয়ে নিয়ম মেনে বালু উত্তোলন করলেও আমাদের একাধিকবার জরিমানা করা হয়েছে। কিন্তু যারা অবৈধভাবে বালু পয়েন্ট থেকে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছে প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে অজ্ঞাত কারনে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।
তবে অবৈধ বালু ব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেন বলেন, সরকারীভাবে বালু উত্তোলনের কোন অনুমোদন নেওয়া হয়নি। তবে দুই একজন সংবাদ কর্মী, থানা পুলিশ ও ইউএনও অফিস সহ স্থানীয় নেতাকর্মীদের ম্যানেজ করেই বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।
ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা বলেন, এবিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি। তবে বাঙ্গালী নদীতে ড্রেজার বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হলে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন