বগুড়া সংবাদ ডটকম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বিক্ষোভ কর্মসূচির পর অবশেষে দীর্ঘ ৪ মাসের বকেয়া বেতন-ভাতা পেতে যাচ্ছেন বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার ৯ ইউনিয়নে কর্মরত ৯৩ জন গ্রাম পুলিশ। বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে সোমবার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের মাঝিড়া বন্দর থেকে বিক্ষোভ সহকারে উপজেলা পরিষদ চত্বরে হাজির হন গ্রাম পুলিশ সদস্যরা। এর আগে রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলা পরিষদ চত্বরে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা।
বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারি ইউনিয়ন শাজাহানপুর উপজেলা শাখার সভাপতি মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ৪ মাসের বেতন-ভাতা মঙ্গলবারে পরিশোধের আশ্বাস দিয়েছেন। গ্রাম পুলিশ কর্মচারি ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন, একজন দফাদারের বেতন ৩ হাজার ৪’শ টাকা আর একজন মহল্লাদারের বেতন ৩ হাজার টাকা। উক্ত বেতনের শতকরা ৫০ ভাগ উপজেলা পরিষদ এবং বাকি ৫০ ভাগ সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ দিয়ে থাকে। কিন্তু বরাদ্দ না থাকার অজুহাতে দীর্ঘ ৪ মাসের বেতন বকেয়া থাকায় দুর্মূল্যের বাজারে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন গ্রাম পুলিশ পরিবারের সদস্যরা। এমনকি হিন্দু ধর্মবলম্বীদের উৎসব ভাতাও বকেয়া রয়েছে। অবশেষে বাধ্য হয়ে গ্রাম পুলিশ সদস্যরা বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে রোববার অবস্থান কর্মসূচি এবং গতকাল সোমবার মহাসড়কে বিক্ষোভ মিছিল করে। অপরদিকে শাজাহানপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান জানিয়েছেন, বরাদ্দ পাওয়া সাপেক্ষে গ্রাম পুলিশদের বেতন-ভাতা প্রদান করা হয়। অর্থ বরাদ্দ না থাকায় ৪ মাসের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি। গত ২১ ডিসেম্বর অর্থ বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে ২ মাসের বেতন দেওয়া হয়েছে। বাকি ২ মাসের বেতন আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে পরিশোধ করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন