বগুড়া সংবাদ ডটকম (নামুজা প্রতিনিধি, আনোয়ার হোসেন): বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার নান্দুড়া ফাযিল মাদ্রাসার ভূয়া গভর্ণিং বডি তৈরি করে সভাপতি সাজিয়ে অধ্যক্ষ আ.আ.ম মনিরুত্তালিবকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করার নোটিশ পাঠিয়ে দেওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। অতঃপর মামলার প্রস্তুতি। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় যে, বিগত ৩ বছর পূর্বে স্থানীয় মিজানুর রহমান অত্র মাদ্রাসার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। ওই মাদ্রাসায় ভোটের মাধ্যমে গভর্ণিং বডি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে অভিভাবক সদস্য নির্বাচিত হন সাইদুর রহমান, শহিদুল ইসলাম ও আব্দুল জলিল। তারপর স্থানীয় এমপির ডিওলেটার মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচিত হয় শিবগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি বাদশা মিয়া, এদিকে পুনরায় মিজানুর রহমান সভাপতি হতে না পাড়ায় বগুড়ার সংরক্ষিত মহিলা এমপির ডিওলেটার এনে ঢাকা মাননীয় হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন এবং মামলার রায়ও পেয়ে যান। সভাপতি বাদশা উক্ত রায়ের বিরুদ্ধে মহামান্য সুপ্রিম কোর্টে আপিল মামলা দায়ের করেন। অত্র মাদ্রাসার শিক্ষক মন্ডলী ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সরকারি বিধি ও নিয়ম অনুযায়ী মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের পাঠদানসহ সফল ভাবে পরিচালনা করে আসছেন, তার কোন অনিয়ম নেই। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আ.আ.ম মনিরুত্তালিব বলেন, যে সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান জোর পূর্বক পুনরায় সভাপতি হতে চায়। তিনি আরও বলেন, সে বাজার থেকে ক্রয় করা রেজুলেশন বহি, প্যাড ও সিল তৈরি করে গত ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ তারিখে আমাকে সাময়িক বরখাস্ত পত্র পাঠিয়ে দেয়। উক্ত ব্যাপারে মাদ্রাসার গভর্ণিং বডির কোন মিটিং হয় নাই। তিনি আরও বলেন, আমরা রেজুলেশন বহিতে কোন রূপ স্বাক্ষর করি নাই এবং অত্র মাদ্রাসার সভাপতি বাদশা মিয়া এর দায়ের করা মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে মিসকেস যার নং-৪২২৯/২০১৭ বিচারাধীন আছে। যে কারণে বোর্ড কর্তৃপক্ষ কোন সিদ্ধান্তে আসতে পারেন নাই।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন