বগুড়া সংবাদ ডট কম (সারিয়াকান্দি প্রতিনিধি রাহেনূর ইসলাম স্বাধীন) : বন্যা দুর্গত মানুষের সব রকম সেবা নিশ্চিত করার কথা জানিয়ে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য সরকার যথাপযোগী ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। বন্যায় আমরা কাউকেই কষ্ট করতে দেবো না। তিনি বলেন, আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নাই। আমি পরিবারকে হারিয়েছি। আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছি। বন্যায় যারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন তাদের খাদ্যের কোন অভাব হবে না, সেই ওয়াদা দিয়ে যাচ্ছি। ক্ষতিগ্রস্থদের টিন দিবো, নগদ টাকা দিবো, যারা ঘর হারিয়েছেন তাদের ঘর করে দেবো।
শনিবার বিকেল সোয়া তিনটার দিকে বগুড়ার সারিয়াকান্দি ডিগ্রী কলেজ মাঠে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, দুর্যোগের আগাম আভাস ও প্রস্তুতি থাকায় আমরা ২৮ শতাংশ চাল আমদানীর শুল্ক কমিয়ে দুই শতাংশ করেছি। ১৫ লাখ মে.টন চাল কিনেছি। সাধারণ মানুষ যেন ১০ টাকা করে ৩০ কেজি চাল কিনতে পারে সেই ব্যবস্থা করেছি। মেডিকেল টিম স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে যাচ্ছে। প্রয়োজনীয় ঔষধ বিতরণ করা হচ্ছে। ত্রাণের কোন অভাব হবে না। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যাদের বই খাতা নষ্ট হয়েছে নতুন করে বই খাতা দেবো। এছাড়াও কৃষক যাতে নতুন করে চাষ করতে পারেন। আমরা সেই ব্যবস্থা নেবো। আজ যে ত্রাণ দিয়ে যাচ্ছি চাল, ডাল, তেল, লবণ, চিনি, দিয়াশলাই সবই প্রয়োজনীয়। এখনো বন্যায় যেসব এলাকায় পানি আছে সেসব এলাকায় পানি বিশুদ্ধ করণ ট্যাবলেট দেওয়া হচ্ছে। বন্যা পরবর্তী সতর্কতা নিয়ে তিনি বলেন, বন্যার পরে কোন রোগ যাতে দেখা না দেয় সে দিকে বিশেষ ভাবে দৃষ্টি দেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জনমানুষের সংগঠন। তাই দেশের কোন মানুষকে না খেয়ে মরতে দেওয়া হবে না।
জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সবাইকে সতর্ক করে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা চাই না এদেশে কোন সন্ত্রাস বা কোন জঙ্গি সংগঠনের জন্ম হোক। যুব সমাজকে মাদকের কড়ালগ্রাস থেকে রক্ষা করতে হলে সমাজের সকল স্তরের সচেতন নাগরিককে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি স্ব-পরিবারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার কথা তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে যারা জড়িত ছিল জিয়াউর রহমান ইন্ডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করে খুনিদেরকে প্রতিষ্ঠিত করেছে।
পরে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের মাঝে ধানের চারা ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।
সভায় প্রধান মন্ত্রীর বক্তব্যের আগে বক্তব্য রাখেন, কৃষি মন্ত্রী বেগম রোকেয়া চৌধুরী, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী মোফাজ্জল চৌধুরী মায়া, খাদ্য মন্ত্রী এ্যাড. কামরুল ইসলাম, পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিছুল ইসলাম, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, ত্রাণ বিষয়ণ সম্পাদক সুজিত কুমার রায়, সারিয়াকান্দি সোনাতলা আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু, সারিয়াকান্দি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাহাদারা মান্নান, ছাত্রলীগের কেন্দ্রী সভাপতি ছাইফুর রহমান সোহাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ শফি প্রমুখ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন