বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) :বগুড়ার ধুনটে আওয়ামীলীগ নেতার দায়েরকৃত চাঁদাবাজী মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানামূলে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও ধুনট ডিগ্রী কলেজের সাবেক জিএস ফেরদৌস আলম শ্যামলকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধায় ধুনট বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ফেরদৌস আলম শ্যামল পৌর এলাকার অফিসারপাড়ার মৃত আব্দুল কাদের মাষ্টারের ছেলে।
জানাগেছে, গত ১২ মার্চ থেকে ধুনট এনইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাসুদুল হক বাচ্চু স্থানীয় একটি এনজিও ‘বাতিঘরের’ আয়োজনে ২০দিন ব্যাপি স্বাধীনতা মেলার আয়োজন করে। মেলায় দেশী বিদেশী বিভিন্ন পণ্যের স্টল সহ শিশু-কিশোরদের বিনোদন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, গুণীজন সংবর্ধনা ও র‌্যাফেল ড্র (লটারী) অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৭ মার্চ বিকালে স্বাধীনতা মেলার লটারী বন্ধের দাবিতে মিছিল করার জন্য উপজেলা পরিষদ সড়কের আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে আওয়ামীলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকে। এসময় স্বাধীনতা মেলার পক্ষে আওয়ামীলীগের অপর অংশের নেতাকর্মীরা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিলে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এঘটনায় গত ১লা এপ্রিল আওয়ামীলীগ নেতা মাসুদুল হক বাচ্চু বাদী হয়ে চিকাশী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলেফ বাদশাহ্, পৌর আওয়ামীলীগের সদস্য পাখি মন্ডল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ফেরদৌস আলম শ্যামল, পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক চপল মাহমুদ, আওয়ামীলীগ নেতা হাসান খসরু খান নূপুর সহ ৮জনকে আসামী করে ধুনট থানায় চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন। ওই চাঁদাবাজী মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানামূলে সোমবার সন্ধায় ফেরদৌস আলম শ্যামলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
ধুনট থানার এসআই শাহজাহান আলী জানান, ৪৯/১৭ নং একটি মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানামূলে ফেরদৌস আলম শ্যামলকে গ্রেফতার করে বগুড়ার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন