বগুড়া সংবাদ ডট কম (আবু রায়হান, দুপচাঁচিয়া বগুড়া থেকে) : বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলায় কোরবানির ঈদ কে কেন্দ্র করে জমে ওঠেছে ফ্রিজ রেফিজারেটর এর মেলা।নানান শ্রেনী পেশার মানুষ কোরবানীর পশুর মাংস সংরোক্ষন করার জন্য বিভিন্ন এলাকা থেকে দুপচাঁচিয়ায় ফ্রিজ রেফিজারেটর কিনতে আসায় ফ্রিজের মেলাগুলিতে দেখা যাচ্ছে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়।
সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়,দুপচাঁচিয়া শহরের সিও অফিস বাসষ্টান্ড এলাকা থেকে মেইল বাসষ্টান্ড পর্যন্ত ৭ টি ইলেকট্রনিক্স কোম্পানির প্রতিনিধিদের আয়োজনে জমে ওঠেছে ফ্রিজ রেফিজারেটরের মেলা।এক দিকে এই সব মেলায় বিক্রেতারা ক্রেতাদের চাহিদা মত ফ্রিজ সরবরাহ করছে,অন্যদিকে ক্রেতারা তাদের পছন্দ অনুযায়ি ফ্রিজ কিনে বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছে।কোরবানীর পশুর মাংস সংরোক্ষন করার জন্য দুপচাঁচিয়া উপজেলার পাশাপাশি আদমদিঘী, কাহালু, নন্দিগ্রাম ও পাশবর্তী আক্কেলপুর উপজেলা থেকে ক্রেতারা ফ্রিজ কেনার জন্য দুপচাঁচিয়ার মেলাগুলিতে ভির জমাচ্ছে। বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি কোরবানীর ঈদ উপলক্ষে ফ্রিজ রেফিজারেটরের মুল্যে বিশেষ ছাড় দেওয়ায় মধ্যবিত্ত শ্রেনী পেশার মানুষেরা ফ্রিজ রেফিজারেটর কেনার আগ্রহ প্রকাশ করছে।
উপজেলার পৌর এলাকার পাইকপাড়া গ্রামের চামরা ব্যবসায়ী ছাদেকুল ইসলাম জানায়,ঈদ উপলক্ষে মার্সেল কোম্পানি ফ্রিজের মুল্যে বিশেষ ছাড় দেওয়ায় তিনি ১৯ সেপ্টি মার্সেল ফ্রিজ ৩৪ হাজার টাকা দিয়ে কিনেছেন।একই গ্রামের বাংলা ফ্যাশন এর মালিক ব্যবসায়ী মিঠুন রহমান জানান, তিনি ওয়ালটন কোম্পানির সাড়ে ১১ সেপ্টি ফ্রিজ ২২হাজার টাকা দিয়ে তার এক আত্বীয় কে কিনে দিয়েছেন।
উপজেলা সদরের মাষ্টার টের্ড্রাস ইলেকট্রনিক্স এর মালিক ওয়ালটন কোম্পানির ডিলার দুপচাঁচিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মঈন খাঁন জানায়,ফ্রিজের মেলায় তিনি ইতিমধ্যে ২০০ টি ফ্রিজ বিক্রি করেছেন সেই সাথে তিনি আরো ২০০ টি ফ্রিজের ওয়ার্ডার করেছেন। তিনি আরো জানান, তার কোম্পানি ঈদ উপলক্ষে ক্রার্চ কার্ডের মাধ্যমে বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে।
সেতু ইলেকট্রনিক্স এর মালিক মার্সেল কোম্পানির ডিলার ফেরদৌস আলম জানান,তিনি ৩০০ টি ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট নিয়েছেন,তিনি ইতিমধ্যে ১৫০ টি ফ্রিজ বিক্রি করেছেন সেই সাথে ঈদ উপলক্ষে লাকী কুপুনের ব্যবস্থা করেছেন।
আইরিন ইলেকট্রনিক্স এর মালিক আহসান হাবিব জানান,তিনি প্রতিদিন বেশ কয়েকটি করে ফ্রিজ বিক্রি করেছেন।
সব মিলিয়ে দেখা যায় উপজেলা সদরের ৭ টি মেলায় ব্যবসায়ীরা এক দিকে ফ্রিজ বিক্রি করে লাভবান হচ্ছে, অন্য দিকে ক্রেতারা কোম্পানির বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার কারনে কিছুটা কম মুল্যে ফ্রিজ কিনে নিয়ে যাচ্ছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন