বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটে বখাটে যুবকের প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় বাড়ীঘর ভাংচুর করে এক স্কুল ছাত্রীকে অপহরনের পর ঘরে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে ওই ছাত্রীর বাবা মতিয়ার রহমান তালুকদার বাদী হয়ে তিন জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
মামলাসূত্রে জানা গেছে, ধুনট উপজেলার ভান্ডারবাড়ী গ্রামের মতিয়ার রহমানের মেয়ে কাজিপুর উপজেলার রানী দিনু মনি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী মিম তালুদারকে (১৪) ভান্ডারবাড়ী গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে আকুল রাজ (১৯) নামের এক যুবক দীর্ঘদিন যাবত প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু এতে ওই ছাত্রী রাজি না হওয়ায় সোমবার বিকালে আকুল রাজ ক্ষিপ্ত হয়ে মতিয়ার রহমানের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ঘর দরজা ভাংচুর করে স্কুল ছাত্রী মিম তালুকদারকে অস্ত্রের মুখে অপহরন করে নিজ বাড়ীতে নিয়ে যায়। সেখানে ওই ছাত্রীকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে মারপিট ও শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায় আকুল রাজ। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে সোমবার সন্ধ্যায় ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
মিম তালুকদারের মা মুক্তা খাতুন জানায়, তার মেয়ে ৫ম শ্রেণী পাশ করার পর নিজ গ্রামের ভান্ডারবাড়ী ছালেহা জহুরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি করানো হয়। ওই সময় থেকে বখাটে আকুল রাজ তার মেয়েকে পথে ঘটে বিভিন্ন সময় প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যাক্ত করতো। বিষয়টি গ্রাম্য মাতব্বরদের কাছে নালিশ করেও কোন প্রতিকার না পেয়ে মেয়ের লেখাপাড়ার জন্য তাকে সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলার রানী দিনু মনি উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি করানো হয়। কিন্তু সেখানে নিকট আত্বীয়ের বাড়ী থেকে লেখাপড়া করা কালিন সময়েও বখাটে আকুল রাজ একাধিকবার কাজিপুরে গিয়ে তার মেয়েকে উত্ত্যাক্ত করছিল। গত রবিবার মিম নবম শ্রেণীর বার্ষিক পরীক্ষা শেষে বাড়ীতে বেড়াতে আসে। সোমবার বাড়ীতে কেউ না থাকার সুযোগে আকুল রাজ বাড়ীতে হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাংচুর করে মিমকে তুলে নিয়ে যায়।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মিম তালুকদার জানায়, আকুল রাজ সহ তার কয়েক সহযোগি তাকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে গিয়ে তার বাড়ীতে আটকে রেখে মারধর ও শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এছাড়া বখাটেরা তার পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। সে বখাটেদের দ্রুত গ্রেফতার করে সুষ্ঠ বিচারের দাবি জানিয়েছে।
এঘটানার সংবাদ পেয়ে বুধবার বেলা ১১টায় বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হাসপাতালে ওই ছাত্রীর চিকিৎসার খোজখবর নেন এবং তিনি আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দেন।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, বাড়ীঘর ভাংচুর করে স্কুল ছাত্রীকে অপহরন ও নির্যাতনের অভিযোগে তিন জনের থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন