বগুড়া সংবাদ ডট কম (গাবতলী প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম লাকী) : বগুড়ার গাবতলী পৌর সদরে গরুর ফার্মে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ ওই ডাকাতির দল ধারালো অস্ত্রের মুখে ১৫লাখ মূল্যের একটি বাছুরসহ ৬টি গরু লুট করেছে। এ ঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
একাধিকসুত্র জানায়, বগুড়া সদর এলাকার মৃত আব্দুস সামাদ সরকারের তিন ছেলে ছানাউল হক ছানা, শফিক ও শহিদুল আলম মানা যৌথভাবে গত তিনবছর আগে গাবতলীর জয়ভোগা গ্রামে পৌণে দুই বিঘা জমির উপর (ব্র্যাক অফিসের সামনে) একটি গরুর ফার্ম দেন। ডাঃ ছানাউল হক ছানা, শফিক ও শহিদুল তিন ভাই বগুড়া শহরে বসবাস করলেও গরুগুলো দেখাশুনা করার জন্য তারা বেতনভুক্ত দুইজন লোক রেখেছিলেন। তবে ওই ফার্মের সামনে ডাঃ ছানাউল হক ছানা’র একটি হোমিওপ্যাথিক ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সেখানে তিনি সকালে এসে বিকেল পর্যন্ত দিনভর রোগী দেখে প্রতিদিনের ন্যায় গত বুধবার সন্ধ্যায় বগুড়া মালতিনগর বাসায় চলে যান। গত বুধবার গভীর রাতে ১০/১২জনের সংঘবদ্ধ একটি ডাকাতদল ফার্মের সামনে একটি ট্রাক নিয়ে আসে। এরপর ডাকাতদল পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গরুর ফার্মের দেয়ালের তারকাটা কেটে ভিতরে প্রবেশ করে প্রথমে ধারালো অস্ত্রের মুখে পুটু (৬০) নামের এক পাহাড়াদারের হাত ও মুখ বেঁধে ফেলে। এ সময় অপর পাহাড়াদার মোস্তফা (২২) ফার্মের ভিতরেই এক রুমে ঘুমিয়ে ছিলো। ডাকাতদল ফার্মে ঢুকে নবজাতক একটি বাছুরসহ ১৫লাখ টাকা মূল্যের মোট ৬টি গরু লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ডাঃ ছানাউল হক ছানা বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ প্রসঙ্গে থানার ওসি খায়রুল বাসার বলেন, গরু চুরির ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ হাতে পেয়েছি। চুরি হওয়া গরুগুলি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন