বগুড়া সংবাদ ডট কম : বজলু চোরর নাম এখন ছোটদের মুখে মুখে। দেশের প্রথম শিশুতোষ বেসরকারি টিভি চ্যানেল দুরন্ততে প্রচারাধিন ‘টিরিগিরি টক্কা’ ধারাবাহিক নাটকের একটি চরিত্র চোরদের সর্দার বজলু চোর। সপ্তাহে পাঁচদিন প্রচারাহচ্ছে শিশুদের জনপ্রিয় সইন্সফিকশন এই নাটকটি। ৬৫পর্বের নাটকটি প্রচারে প্রায় শেষের দিকে। প্রতি সপ্তাহের রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৮.৩০, ১২.৩০, সকাল ৭.৩০ এবং সন্ধ্যা ৬টায় নাটকটি প্রচার হচ্ছে। এম আসলাম লিটন এর রচনা ও ধ্বনি চিত্রেরর প্রযোজনায় এটি পরিচালনা করেছেন তৌহিদ খান বিপ্লব।
নাটকের নেগেটিভ চরিত্র বজলু; চোর হওয়া সত্তেও ছোটদের মনে তার প্রতি তৈরি হয়েছে ভালবাসা। নেগেটিব এই চরিত্রটিকে নাট্যকার এম. আসলাম লিটন তার লেখনির নৈপুন্যে শিশু-কিশোরদের কাছে আকর্ষনীয় করে তুলেছেন, তাছাড়া এই চরিত্রের অভিনেতা নিথর মাহবুব দেশের নন্দিত একজন মাইম শিল্পী। যার কাজই হল এক্সপ্রেশান নিয়ে। ফলে নাটকে বজলু চোর চরিত্রটি তার অভিনয়শৈলীতে হয়েছে আরও প্রাণবন্ত।
একটা সময় ছিল বিটিভিতে কোন নাটক হলে বেশ আলোচনায় চলে আসত। নাটকের কোন চরিত্র ভাল করলে সেই চরিত্রের মানুষটিকে রাস্তা-ঘাটে দেখলেই চিনে ফেলত। অনেক বছর পর যেন আবার সেই দিন ফিরিয়ে আনল দুরন্ত টিভি। শিশুতোষ অনুষ্ঠানের কারনে এই টিভির মূল দর্শক শিশু-কিশোররা হলেও শিশু-কিশুরদের কল্যানে এই টিভির অনেক অনুষ্ঠানের দর্শক এখন বড়রাও। পরিবারের বড়দের মধ্যে অনেকেই নিয়মিত দেখছেন ‘টিরিগিরি টক্কা’ নাটকটি।
নাটকটির সংলাপগুলোতে রয়েছে শিশুদের জন্য শিক্ষনীয় এবং জ্ঞেনের অনেক কথা। যার ফলে আনন্দের মাধ্য দিয়ে সমৃদ্ধ হচ্ছে শিশুরা। বাড়ছে তাদের মেধার ভান্ডার। শিশু-কিশুররা জানছে বিজ্ঞানের অনেক কথা, জানছে আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্যের কথা। অপরদিকে নাটকের কাজের মেয়ে রুকসানার অনবদ্য অভিনয়ও বেশ উপভোগ করছে দর্শকরা। তার কথায় কথায় ব্যাবহত সংলাপ ‘আমি আর এই বাড়িতে থাকুম না’ও বেশ আলোচিত শিশুদের মধ্যে। এই চরিত্রটিতে অভিনয় করেছেন নীলা। নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র শিশু শিল্পী নদীও শিশু-কিশোরদের কাছে এখন ব্যাপক জনপ্রিয়। এছাড়াও নাটকে অপর দুই শিশু শিল্পীদের মধ্যে কিসমত দাড়োয়ানের মেয়ের ভুমিকায় ইরা, ‘টিরিগিরির টক্কা’ চরিত্রে তুর্য অভিনয় করছে। বড়দের মধ্যে বাবার চরিত্র হিল্লেল, মায়ের চরিত্রে তুষ্টি, কবি নির্লিপ্ত হৃদয় মামার চরিত্রে সুজাত শিমুল, কাজের মেয়ের চরিত্রে নীলা, কিসমত দাড়োয়ানের চরিত্রে জামান অভিনয় করছেন।
নাটকে ১৪০০ মিলিয়ন আলোক বর্ষ দূরে ডুরিডারিডং গ্রহ থেকে পৃথিবীতে আসে এলিয়েন। সেখান থেকে পৃথিবীতে এসে সূর্যমুখীদের ঘরে অবস্থান নেয় সে। তাদের গ্রহের তথ্যভান্ডার সয়ংসম্পুর্ণ। তারা ভবিস্যতের কথাও বলে দিতে পারে। কন্তিু তাদের গ্রহ থেকে জীববৈচিত্র, আবেগ অনুভুতি, গাছপালা সব বিলুপ্ত। পৃথিবী থেকে তথ্য সংগ্রহ করে তাদের গ্রহের আগের রুপ ফিরিয়ে আনতে পৃথিবীতে আসে টিরিগিরি টক্কা নামের এই এলিয়েন। সে জানায় তার বয়স কয়েক কোটি বছর। ভিন গ্রহের এই এলিয়েন পৃথিবীতে আসলে তাকে কেন্দ্র করে নাটকে তৈরি হতে থাকে নানান ঘটনা।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন