বগুড়া সংবাদ ডটকম (সোনাতলা সংবাদদাতা মোশাররফ হোসেন) : সোনাতলায় বিয়ের প্রলোভনে কলেজ ছাত্রী অপহরণ মামলায় অপহরণকারীর বাবা মা ও ছোট ভাইকে পুলিশ গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। থানার এসআই সোহেল রানা জানান বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার গনকপাড়া গ্রামের হাফিজুর রহমানের কলেজ পড়ুয়া ছেলে মোঃ সোহাগ (২১) বিয়ে করার প্রলোভনে সোনাতলা উপজেলা কাতলাহার গ্রামের লিয়াকত আলী মাস্টারের একাদশ শ্রেণির মেয়ে লতা খাতুনকে নিয়ে কোথাও চলে গেছে। এ ব্যাপারে মেয়ের বাবা লিয়াকত আলী সোহাগ ও তার বাবা-মা সহ ছয়জনকে আসামী করে সোনাতলা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মামলার ভিত্তিতে সোহাগের বাবা হাফিজুর রহমান (৬০),মা সাজেদ বেগম (৫২) ও ছোট ভাই সোহানকে (১৮) বৃহস্পতিবার ভোররাতে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। সোহাগের বাবা-মা জানান, আমার ছেলে সোহাগ সারিয়াকান্দি কলেজে ডিগ্রি শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। আর লতা খাতুন সৈয়দ আহম্মদ কলেজে একাদশ শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। এ দু’জনের মধ্যে প্রেম সম্পর্ক গড়ে উঠেছে বলে শুনেছি। প্রেমের টানে তারা (সোহাগ-লতা) প্রায় এক মাস আগে একে অপরের হাত ধরে উধাও হয়ে গেছে। কিন্তু তারা কোথায় এবং কি অবস্থায় আছে তা আমরা জানিনা।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন