বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে অপ্রাপ্ত বয়স্ক সহোদর দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে ১ম শ্রেণীর এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটি বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতারের গাইনী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধিন রয়েছে। এঘটনায় শিশুটির বাবা বাদি হয়ে শাজাহানপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
শিশুটির বাবা আবুল কালাম আজাদ জানান, তার গ্রামের বাড়ি বগুড়া ফুলবাড়ি মহিলা কলেজের পিছনে। ৬ বছর পুর্বে শাজাহানপুরের বেতগাড়ী মধ্যপাড়ায় ভাড়া বাসায় স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করে আসছেন। পেশায় তিনি একজন ইলেক্টিশিয়ান ছিলেন। কিছুদিন পূর্বে বৈদ্যতিক দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে বর্তমানে শারিরিক ভাবে কর্ম অক্ষমতায় ভুগছেন। অভাব-অটনের কারণে তার দু’পুত্র ও স্ত্রী অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে। অপর দু’কন্যাকে নিয়ে কোন রকমে সংসার চলছে। এমতাবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধায় খেলা-ধুলা শেষে বাড়ি ফেরার সময় তার শিশু কন্যা বেতগাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণীর ছাত্রীকে প্রতিবেশী মোহাম্মাদ আলীর দু’পুত্র আসিফ (১৫) ও আতিক (১২) জোর করে গামছা দিয়ে মুখ বেধে বাড়ির পাশে বাঁশঝাড়ের ভিতর নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েটি বাড়িতে গেলে শারিরিক অবস্থা বুঝতে পেরে তাকে ওই রাতেই বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এঘটনায় শাজাহানপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।
থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, মেয়ের বাবা বিষয়টি জানিয়েছেন। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হচ্ছে তাদের বয়সও কম। ধর্ষণের বিষয়টি সন্দেহান। ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন