bograsangbad_Logoবগুড়া সংবাদ ডট কম (দুপচাঁচিয়া প্রতিনিধি আবু রায়হান) : দুপচাঁচিয়া ২৪ আগোষ্ট বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া-নওগাঁ সড়কের উপজেলা সদরের মেইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী স্ত্রী জেসমিন নাহার(২৫) ও মেয়ে সুমাইয়া আকতার(৮) নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় স্বামী সাদেকুল ইসলাম(৩৮) দুপচাঁচিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সাদেকুল ইসলাম আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার কাশমিল্লা গ্রামের বাসিন্দা। সাদেকুল দুপচাঁচিয়ার মেইল বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত সুমাইয়া ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগোনেস্টিক সেন্টারের মালিক।
প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, মোটরসাইকেল চালক সাদেকুল ইসলাম তাঁর স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে দুপচাঁচিয়া মেইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছিলে একটি সিমেন্ট কোম্পানির কাভার্ড ভ্যান মোটরসাইকেলের পেছনে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে সাদেকুল তাঁর স্ত্রী ও মেয়ে সড়কের ওপর ছিটকে পড়েন। কাভার্ড ভ্যানটির চাকা সাদেকুলের স্ত্রী ও মেয়ের ওপর দিয়ে যাওয়ায় তাঁরা পিসে যায় এবং ঘটনাস্থলেই স্ত্রী মারা যান। স্থানীয়রা গুরুতর আহত সাদেকুল ও মেয়েকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক মেয়ে সুমাইয়াকে মৃত ঘোষনা করেন। এবং সাদেকুলকে ভর্তি করানো হয়।
দুপচাঁচিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আবদুর রাজ্জাক দুর্ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন দুর্ঘটনার পর পরই কাভার্ড ভ্যানটি আটক করা হয়েছে। তবে দুর্ঘটনার পর চালক পালিয়ে যায়।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন