বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে বগুড়া-নাটোর মহাসড়কের টেংরামাগুর ও গোহাইল স্ট্যান্ডে গতকাল বুধবার দিনব্যাপি উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে বগুড়া সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ)। অভিযানে এই দু’টি পয়েণ্টে দীর্ঘদিনের গড়ে উঠা ২ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।
থানা পুলিশের সহায়তায় পরিচালিত উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দেন সওজ ঢাকা জোনের এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা (উপ-সচিব) মাহবুবুর রহমান ফারুকী। উচ্ছেদ কাজে তাকে সহায়তা করেন শাজাহানপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান, সওজ বগুড়ার নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামান, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মাছুদুর রহমান, উপ-সহকারি প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান আকন্দ। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খরনা ইউপি চেয়ারম্যান সাজেদুর রহমান সাহীন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক সোহরাব হোসেন সান্নু, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মতিন মেম্বার সহ হাজারও উৎসুক জনতা। উচ্ছেদ অভিযান সম্পর্কে জানতে চাইলে সওজ’র এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান ফারুকী (উপ-সচিব) সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাস, অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার এবং সড়ক চলাচল উপযোগি রাখতে দেশ ব্যাপি উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। সেই অভিযানের ধারাবাহিকতায় বগুড়া-নাটোর সড়কে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে বগুড়ায় মহাসড়কের পাশের সবগুলো অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পরিকল্পনা রয়েছে বলেও তিনি জানান। অপরদিকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে সরকারের এই অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক সোহরাব হোসেন সান্নু জানিয়েছেন, অভিযানটি সড়কের শুরু কিংবা শেষ অংশ থেকে আরম্ভ না হয়ে মাঝখান থেকে শুরু হওয়ায় সাধারণ মানুষের মাঝে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে সরজমিনে দেখাগেছে, অবৈধ স্থাপনা গুলোতে পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ থাকায় পল্লী বিদ্যুতের টেকনিশিয়ানরা তাড়িঘড়ি কে লাইন কেটে দেন

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন