বগুড়া সংবাদ ডট কম (দুপচাঁচিয়া প্রতিনিধি আবু রায়হান) : প্রতারনা করে নকল স্বর্ণের পুতুল বিক্রি করার অভিযোগে রোববার বিকেলে পুতুল উদ্ধার এবং নারীসহ তিন প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন উপজেলার বালুকাপাড়া গ্রামের তোতা হোসেন(৫০), ঝাঝিড়া গ্রামের রবিন ইসলাম(৩০) এবং নাসিমা বেগম(৪০)। এ ঘটনায় প্রতারনার শিকার মতিউর রহমান বাদী হয়ে রোববার সন্ধ্যায় দুপচাঁচিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
থানা সূত্রে জানা গেছে, প্রায় বিশ দিন আগে ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে রাজশাহীর পবা উপজেলার হরিপুর গ্রামের মতিউর রহমানের সঙ্গে দুপচাঁচিয়া উপজেলার ঝাঝিড়া গ্রামের রুবেল হোসেন নামের এক তরুণের পরিচয় হয়। মতিউর রহমান ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা বেচাকেনা করেন। সেই সুবাদে রুবেল হোসেন মতিউরকে মুঠোফোনে তাঁর এলাকায় কমদামে অটোরিকশা বিক্রির কথা বলে দুপচাঁচিয়ায় আসতে বলেন। মতিউর গত রোববার বিকেলে ঝাঝিড়া গ্রামে আসেন। রুবেল ওই গ্রামে তাঁর পালিত মাতা নাসিমার বাড়িতে মতিউরকে রেখে তাঁর সহযোগিদের নিয়ে অটোরিকশার পরিবর্তে স্বর্ণের পুতুল বিক্রির লোভ দেন। এতে মতিউর রাজি না হলে তাঁকে নাসিমার বাড়িতে আটকে রেখে মারপিট করে নগদ সাত হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে সন্ধ্যায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে নকল স্বর্ণের পুতুলসহ তিন প্রতারককে গ্রেপ্তার করে।
দুপচাঁচিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাকির হোসেন নকল স্বর্ণের মূর্তি দিয়ে প্রতারনার ঘটনায় ৩জনকে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করে জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন