বগুড়া সংবাদ ডট কম (আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান) : বগুড়ার আদমদীঘির সাওইল গ্রামের চক্রবতী নামে সরকারী পুকুর পাড়ের প্রায় ১ লক্ষাধিক টাকা মুল্যের ইউক্যালেকটাস গাছ কর্তন করা হয়েছে। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহন হয়নি।
জানা যায়, আদমদীঘির সাওইল গ্রামের চক্রবতী নামের একটি বড় সরকারী খাস খতিয়ানে পুকুর পাড়েরর গাছ অবৈধ ভাবে সরকারী নীতি নিয়ম না মানিয়ে প্রায় ১ লক্ষাধিক টাকা মুল্যের বড় ধরনের ৮টি ইউক্যালেকটাস গাছ বিক্রি করেন। ওই গাছগুলো মুরইল এলাকার গাছ ব্যবসায়ী রায়হান নামের এক ব্যাক্তি নায্যমুলে ক্রয় করে মিস্ত্রী দ্বারা কর্তন করেন। এ ব্যাপারে গাছ ব্যবসায়ী রায়হান জানায়, ওই গ্রামের হাজী ওমর আলীর ছেলে হাজী আত্তাব হোসেন পুকুর পাড়ের নিজের জমির গাছ হিসাবে বিক্রয় করেন। সরকারী জায়গার উপর গাছ তা জানি না জানলে ক্রয় করতাম না। স্থানীয়রা দাবী করেন গাছগুলো সরকারী জায়গার উপর। এ ব্যাপারে বিক্রিত মালিক আত্তাব আলীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, পুকুর টি সরকারী ও মালিকান অংশ আছে তবে বিক্রিত গাছ তার নিজস্ব জমির উপর বলে দাবী করেন। উপজেলা ভুমি অফিসের সার্ভেয়ার এমদাদুল হোসেন রবিবার বিকেলে ঘটনাস্থল পরির্শন করেছেন এবং উদ্ধর্তন কর্মকর্তাকে অবগত করেছেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন