বগুড়া সংবাদ ডটকম (মহাস্থান প্রতিনিধি এসআই সুমন) : বগুড়ার শিবগঞ্জে বসতবাড়ির জায়গা বিরোধে চাচার লাঠির আঘাতে ফেরদৌসী নামে আপন ভাতিজি গুরুত্বর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের ফেনীগ্রাম (গান্দাইল) গ্রামে। থানায় অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত বিনছের আলীর ছেলে আব্দুল মজিদ বড় ভাইয়ের মৃত্যুর পর একই গ্রামে বসবাসকারি এতিম মেয়ের পৈত্রিক সম্পত্তি দখলে নেওয়ার চেষ্ঠা করে। এতে বাধাঁ দিলে চাচা আব্দুল মজিদের নেতৃত্বে ছেলে রবিউল ইসলাম, মাশকুর আলম, মেয়ে সেলিনা ও স্ত্রী আঞ্জুয়ারা বেগম সংঘবদ্ধ ভাবে জোরপর্বক ভাতিজি ফেরদৌসী বেগমকে ধরে নিয়ে গিয়ে গাছের সাথে বেধেঁ বেধড়ক পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। এসময় স্থানীয় লোকজন ফেরদৌসীকে মূমর্ষ অবস্থায় প্রথমে শিবগঞ্জ হাসপাতালে ও পরে বগুড়া শজিমেকে ভর্তি করেন। চাচা আব্দুল মজিদের লাঠির আঘাতে আপন ভাতিজি ফেরদৌসী এখন মূমর্ষ অবস্থায় শজিমেকে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
ফেরদৌসীর স্বামী আব্দুল হামিদ সাংবাদিকদের জানান, ঘটনার সময় সে বাড়িতে ছিলেন না। তাঁর স্ত্রীকে বাড়িতে ধরে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে মারপিট করে আমার বাড়ির সামনে ফেলে গেছে তারা। চাচা শশুড় আব্দুল মজিদ আমাদের বাড়ির ড্রেন গত ৬মাস ধরে গায়ের জোরে বন্ধ করে রেখেছে। সে আমাদেরকে বসতবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়াসহ বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়েছে এর সুবিচার চান তিনি। এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানায আব্দুল মজিদসহ ৫জনের নামে অভিযোগ করা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন