বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে উত্যক্তকারী সনি ও পায়েলের নামের ২ ইভটিজারকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। অপরদিকে ইভটিজারদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শনিবার সকালে মানব বন্ধন করেছে বড়নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং নগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
উল্লেখ্য, শাজাহানপুর উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থিত বড়নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিদালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী লাকি আক্তারকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই উত্যক্ত করতে পলিপলাশ মুন্সিপাড়ার রফিকুল ইসলামের পুত্র সনি (২০) এবং রাজারামপুর গ্রামের ফরিদুল ইসলামের পুত্র পায়েল (১৯)। গত ২৯ অক্টোবর মডেল টেস্ট পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার জন্য লাকি আক্তার টেম্পুর অপেক্ষায় স্কুল গেটে দাঁড়িয়ে ছিল। এমতাবস্থায় পূর্বপরিকল্পিত ভাবে সনি ও পায়েল তাকে ছুরির মুখে জিম্মী করে টেম্পুতে উঠায় নেয় এবং বলে চিৎকার করলে এসিড মেরে শরীর ঝলসে দেয়া হবে। তারা লাকি আক্তারকে বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমি এলাকায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে লাকি পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় লাকির বাবা বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ঘোড়দৌড় গ্রামের লাল মিয়া প্রামানিক বাদি হয়ে গত ০২ নভেম্বর মেয়ের সম্ভ্রম ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে শাজাহানপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট ইভটিজারদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনাটি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশ হলে বিষয়টিকে গুরুত্বসহকারে নেয় প্রশাসন। একপর্যায়ে শনিবার সকালে স্কুল গেটের কাছে লাকিকে উদ্দেশ্য করে সনি ও পায়ের শীশ দেয় এবং যৌন ইঙ্গিত করে। এতে সাড়া না দেয়ায় পথ রোধ করে লাকিকে আটকে রাখার চেষ্টাকরে। এ সময় শাজাহানপুর থানা পুলিশের সহায়তায় সনি ও পায়েলকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত। পরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ২ ইভটিজারকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন শাজাহানপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কামরুজ্জামান। শাজাহানপুর থানা পুলিশ গতকালই সাজাপ্রাপ্ত ২ ইভটিজারকে আদালতে প্রেরণ করেছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন