bograsangbad_Logoবগুড়া সংবাদ ডট কম (শেরপুর সংবাদদাতা রায়হানুল ইসলাম) :বগুড়ার শেরপুরে বাজার মনিটরিং কমিটির উদ্যোগে খাদ্যশস্য লাইসেন্স বাধ্যতামূলক করতে উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দিন ব্যাপী শেরপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এ কমিটি সংশ্লিস্টদের সাথে কথা বলেন। শেরপুর উপজেলা কমিশনার (ভ’মি) মোঃ লিটন সরকার বাজার মনিটরিং কমিটির নেতৃত্ব দেন। শেরপুর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোঃ হারুনুর রশিদ জানান,শেরপুর উপজেলার সকল আমদানীকারক,পাইকারী ব্যবসায়ী,আড়তদার,খুচরা ব্যবসায়ী এবং মিলি মালিক/মিনি চাতাল মালিকসহ খাদ্যশস্য ব্যবসায়ীগণকে কন্ট্রোল অব এ্যাসেনসিয়াল কমোডিটিস এ্যাক্ট ১৯৫৬ আইনের ক্ষমতাবলে এসআরও জারী করে খাদ্যশস্য লাইসেন্স বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। খাদ্যশস্য লাইসেন্স ব্যতীত এক মেঃটনের অধিক/ ধান/ চাল/ গমজাত দ্রব্য, সয়াবিন/ পামওয়েলতেল, ডাল এবং চিনি ইত্যাদি সামগ্রী সরকার কর্তৃক নির্ধারণকৃত সময়ের বেশি সময় ধরে কোন ব্যবসায়ী মজুদ রাখতে পারবেননা।
তিনি জানান, শেরপুর উপজেলার মোট ৫২০ টি লাইসেন্সধারী চালকল ও সেমি অটোরাইসমিল রয়েছে। এ ছাড়া প্রায় ২ হাজার মিনি চাতাল রয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল মিলচাতাল লাইসেসেন্সের আওতায় আনা হবে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাজার মনিটরিং কমিটির সদ্যস্য শেরপুর সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপক মোঃ আমিরুল ইসলাম,শেরপুর টাউনক্লাব পাবলিক লাইব্রেরী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ হাফিজুল ইসলাম, বিশিস্ট সমাজ সেবক মোঃ আব্দুল কাদের, শেরপুর থানা চালকল মালিক সমমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল হামিদ, আড়তদার সমিতির সভাপতি বশির উদ্দিন,নুরুল ইসলাম, মির্জাপুর খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শেখ আবু এরশাদ, শেরপুর খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইউসুফ আলী ও খাদ্য পরিদর্শক গাজী মোঃ শফিকুল ইসলাম।

 

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন