বগুড়া সংবাদ ডট কম (আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান) : বগুড়ার আদমদীঘিতে চলতি মৌসুমে আমন ধানে কারেন্ট পোকার আক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। এদিকে কারেন্ট পোকা দমনে বাজারে নামে বেনামে যেসব কীটনাশক পাওয়া যাচ্ছে সেগুলো নিয়মিত জমিতে প্রয়োগ করে আশানুরূপ কোন ফল পাওয়া যাচ্ছে না। তবে উপজেলা কৃষি অফিস আশঙ্কা প্রকাশ না করলেও কৃষকরা বলছেন, সময় মতো কারেন্ট পোকা দমন করতে না পারলে আমন উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে।
জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উপজেলায় এবার আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ হাজার ৯শ হেক্টর জমি। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় ও জমিতে কারেন্ট পোকার আক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হতে পারে বলে কৃষকদের আশঙ্কা। উপজেলার সদর ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া গ্রামের কৃষক কোরবান আলী জানান, জুলাইয়ের মাঝামাঝি থেকে আমন চাষ শুরু হয়। কারেন্ট পোকার আক্রমণ দেখা দেয় নভেম্বরের মাঝামাঝিতে। তাতে ধানের তেমন কোন ক্ষতি হয় না। কিন্তু এবার অনেক আগে থেকেই ধানে কারেন্ট পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে। সদর ইউনিয়নের কুসুম্বী গ্রামের কৃষক নূরুল ইসলাম বলেন, কারেন্ট পোকা দমনের প্রয়োজনীয় কীটনাশক বাজারে থাকলেও সেসব প্রয়োগ করে কোন ফল পাওয়া যায় না। সময় মতো কারেন্ট পোকা দমন করতে না পারলে এবার আমন ধান উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে বলে জানান তিনি।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ কামরুজ্জামানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, ধান ক্ষেতে কারেন্ট পোকার আক্রমণ ঠেকাতে এলাকার জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের নিয়ে উদ্বুদ্ধকরণ সভা করা হচ্ছে। সচেতনতা সৃষ্টিতে এরই মধ্যে এ সম্পর্কিত প্রচার পত্র বিতরণ করা হয়েছে। কারেন্ট পোকা দমনে ধান ক্ষেতে আলোক ফাঁদ তৈরির জন্য কৃষকদের বলা হয়েছে। তবে কারেন্ট পোকার আক্রমণে ধান উৎপাদন ব্যাহত হবে না ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন