বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড নিয়ে বিতর্কমূলক পোষ্ট দেওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম। গত কয়েক দিন ধরে এনিয়ে ফেসবুকে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী ও সমর্থিতদের মধ্যে চলছে ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনা। রীতিমতো ফেসবুকে চলছে প্রতিবাদের ঝড়ও। কেউ কেউ তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানিয়েছেন।
জানাগেছে, চৌকিবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম গত ২৩ অক্টোবর তার রাফি মেম্বার নামের ফেসবুক পেজে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ও বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবর রহমানের ছবি সহ একটি লেখা পোষ্ট করেছেন। তিনি ফেসবুকে লিখেছেন, উন্নয়নের অস্থিরতার কারনে জনদূর্ভোগ চরমে, সড়ক মহাসড়কে উঠলেই নাগরিকের বিরক্তিকর ভাষ্য, জনপ্রতিনিধি হিসাবে পরিচয় দিতে ভয় লাগে কখন যে কি হয়। সরকারের পক্ষপাতহীন আচরনে মনে হয় আমরা বগুড়াবাসী অপরাধী ধুনট, শেরপুর, সারিয়াকান্দি, সোনাতলার জনগন কেন আওয়ামীলীগ করি। পাশ্ববর্তী কাজিপুরের দিকে তাকালে মনে হয় সরকার শুধু কাজিপুরের জন্য আমাদের জন্য না। উন্নয়নের কাজে যদি পাকিস্তানের আমলের সেই বৈষম্য চলে তা হলে গনতন্ত্র আর দলের জন্য লড়াই করে কি হবে। আমাদের দাবি বৈষম্য নীতি পরিহার করে সুষম বন্টনের মাধ্যমে প্রত্যেক উপজেলার কাজ করুন।
তবে স্বেচ্ছাসেকলীগ নেতার ফেসবুকে এমন পোষ্ট দেখে গত কয়েক দিন ধরেই নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে প্রতিবাদের ঝড়। ওই ফেসবুক পোষ্টটি কপি করে ২৫ অক্টোবর শাহ আলম জীবন নামের এক ব্যক্তি প্রতিবাদ জানিয়ে তার ফেসবুকে দিয়েছেন। শুক্রবার পর্যন্ত ওই ফেসবুক পেজে প্রতিবাদ জানিয়ে অসংখ্য কমেন্টস করেছে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী ও আওয়ামীলীগ সমর্থিত ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। কেউ কেউ তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানিয়েছেন।

ধুনট সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আল আমিন বিশ্বাস কমেন্টসে লিখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের বিরোধীতা করা এবং বাংলাদেশকে পাকিস্তান আমলের সাথে তুলনা করায় তার বিরুদ্ধে শাস্তি দাবি জানাই।
ধুনট পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক চপল মাহমুদ বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগ ও ধুনট উপজেলা আওয়ামীলীগের দৃষ্টি আকর্ষন করে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।
তবে এবিষয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বলেন, ফেসবুকে নিজের মতামত দেওয়ায় জায়গা। তাই ফেসবুকে নিজের মতামত দিয়েছি। কেউ যদি অন্য কিছু মনে করে তাইলে কিছুই করার নাই।
এবিষয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ ও সাধারন সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম গামা বলেন, কোন স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা যদি সরকারী বিরোধী কোন মন্তব্য ফেসবুকে পোষ্ট করে তাহলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন