বগুড়া সংবাদ ডট কম (ইমরান হোসেন ইমন, ধুনট থেকে) : বগুড়ার ধুনট উপজেলার সীমানার ভিতর দিয়ে সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগের নির্মান করা সড়কটি এখন মরণফাঁদে পরিনত হয়েছে। সীমানা দিয়ে জটিলতার কারনে দীর্ঘ ৭ বছরে একবারও সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে এসড়ক দিয়ে কাজিপুর উপজেলার লোকজন খুব একটা চলাচল না করলেও ধুনট উপজেলার হাজারো মানুষকে প্রতিদিন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
জানাগেছে, ২০১০ সালে সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগ কাজিপুর উপজেলার পাইকপাড়া থেকে বগুড়ার ধুনট উপজেলার দিঘলকান্দি পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার পাকা সড়ক নির্মান করে। তন্মধ্যে আধা কিলোমিটার সড়কের সীমানা কাজিপুর উপজেলার এবং সাড়ে চার কিলোমিটার সড়কের সীমানা ধুনট উপজেলার। ওই সড়ক দিয়ে কাজিপুর উপজেলার শুধুমাত্র পাইকপাড়া এলাকার লোকজন এবং ধুনট উপজেলার প্রায় ১৫/২০টি গ্রামের লোকজন যাতায়াত করে। কিন্তু সড়কটি নির্মানের সময় সীমানা নিয়ে জটিলতার কারনে কয়েক দফা কাজ বন্ধ হলেও সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগ পরবর্তীতে সড়কটি নির্মান করে। কিন্তু সড়কটি নির্মানের ৬ মাসের মধ্যেই কার্পেটিং উঠে বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গন শুরু হয়। তারপরও ৭ বছরের মধ্যে এক বারও সড়কটি সংস্কার করা হয়নি। এতে সড়কের বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে এবং সড়কের বিভিন্ন স্থানে দু’পাশ ভেঙ্গে গেছে। স্থানীয় লোকজন ও ধুনটের চৌকিবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ মাঝেমধ্যে ভাঙ্গা স্থানে মাটি ও ইটের রাবিশ ফেলে সাময়িকভাবে মেরামতের চেষ্টা করলেও তা বৃষ্টির পানিতে আবারও ধসে যায়। এতে ওই সড়কে হালকা যানবাহন কোন রকমে চলাচল করলেও ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। একারনে কৃষি পন্য পরিবহনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে এবং জনসাধারনের যাতায়াতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
চৌকিবাড়ী গ্রামের ধান ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম বলেন, জনগুরুত্বপূর্ণ এসড়ক দিয়ে প্রতিদিন ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ী ও গোপালনগর ইউনিয়নের ১৫/২০টি গ্রামের লোকজন যাতায়াত করে। কিন্তু দীর্ঘদিন যাবত সড়কটি সংস্কার না করায় বিভিন্নস্থানে ভেঙ্গে গেছে। এতে কোন রকমে ভ্যান-রিকসা চলাচল করলেও ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। একারনে কৃষি পণ্য পরিবহনেও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে পৌছাতেও বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে।
ধুনট উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম বলেন, কাজিপুরের পাইকপাড়া থেকে ধুনটের দিঘলকান্দি পর্যন্ত পাকা সড়কটি সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপদ বিভাগ নির্মান করেছে। একারনে এলজিডি থেকে সড়কটি সংস্কার করা সম্ভব হচ্ছে না।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন