bograsangbad_Logo

বগুড়া সংবাদ ডট কম (আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান) : বগুড়ার সান্তাহার শহরের মালশন গ্রামে প্রেমের ফাঁদে ফেলে কিশোরীকে ধর্ষন ঘটনায় পুলিশী তৎপরতায় অবশেষে ওই কিশোরীকে ঘড়ে তুলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ধর্ষক আরিফের পরিবার। এর প্রেক্ষিতে ধর্ষিতার পরিবার থানায় দেয়া অভিযোগ লিখিত ভাবে প্রত্যাহার করে নিয়েছে। জানা নেয়া গেছে, প্রেমের ফাঁদে ফেলে কিশোরী ধর্ষন ঘটনার অভিযোগ আদমদীঘি থানা পুলিশকে লিখিত ভাবে দেওয়ার তিন দিনেও থানা পুলিশের নীরবতার খবর পেয়ে শনিবার সংবাদ কর্মীরা সরেজমিন করে। পরে সান্তাহার ফাঁড়ি পুলিশের অফিসার ইনচার্য মোঃ মুসা মিয়া এদিন সন্ধার দিকে তদন্তে গেলে টনক নড়ে ধর্ষক আরিফের বাবা-মা ও স্বজনদের। পুলিশী তদন্তের সময় ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জার্সিস আলম রতন এবং গ্রামের মান্যগন্য ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও সমবেত হন শতাধিক গ্রামবাসী। এ সময় পুলিশকে আইনগত ব্যবস্থা না নেয়ার অনুরোধ করে আরিফ হোসেনের বাবা আসলাম হোসেন ও মা লিপি বেগম এবং স্বজনরা আরিফ এবং শেফা আক্তারের সাথে কয়েক বছর ধরে চলা প্রেম এবং মেলামেশার ঘটনা স্বীকার করেন এবং শেফা আক্তারকে আরিফের সাথে বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহন করে। এর প্রেক্ষিতে শেফা আক্তারের মা সুমি বেগম থানায় দেওয়া অভিযোগ লিখিত ভাবে প্রত্যাহার করে নেয়। এর ফলে গ্রামবাসীর মনেও ফিরে এসেছে স্বস্তি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন